সালথায় বঙ্গবন্ধু স্মৃতি সংসদ, ছাত্র ফেডারেশন এর পক্ষে থেকে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে পুস্পস্তবক অর্পণ।


শরিফুল হাসান, ফরিদপুর প্রতিনিধি। আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে ফরিদপুরের সালথায় শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পন করা হয়েছে রাত ১২ টা ১ মিনিটে পুষ্পস্তবক শেষে এক মিনিট দাঁড়িয়ে নীরাবতা পালন করা হয় এবং ভাষা আন্দোলনের শহীদদের স্মৃতির প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জানানো হয়, ১৯৫২ সালের ২১ ফেব্রয়ারি। মায়ের ভাষাকে রক্ষার জন্য রাজপথে আন্দোলন হয়।

পাকিস্তানি সরকারি বাহিনীর গুলিতে প্রাণদান করে বাংলা মায়ের দামাল ছেলেরা। সালাম-বরকত-রফিক-শফিক-জব্বার আরও কত নাম না-জানা সেসব শহীদের আত্মত্যাগে আমরা ফিরে পাই আমাদের প্রাণের ভাষা বাংলা। জাতিসংঘের স্বীকৃতির ফলে একুশে ফেব্রুয়ারি আজ আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস হিসেবে পালিত হচ্ছে আমাদের বাংলা ভাষার জন্য এক দারুণ ব্যাপার ঘটল সেদিন।

দিনটি ১৯৯৯ সালের ১৭ নভেম্বর। ফ্রান্সের রাজধানী প্যারিসে ইউনেসকোর ৩০তম অধিবেশন বসে। ইউনেসকোর সেই সভায় একুশে ফেব্রুয়ারিকে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস হিসেবে ঘোষণার প্রস্তাব পাস হয়। ফলে পৃথিবীর সব ভাষাভাষীর কাছে একটি উল্লেখযোগ্য দিন হিসেবে একুশে ফেব্রুয়ারি স্বীকৃতি পায়। বিশ্বের দরবারে বাংলা ভাষা লাভ করে বিশেষ মর্যাদা।

ঠিক পরের বছর ২০০০ সালের ২১ ফেব্রয়ারি থেকে পৃথিবীর ১৮৮টি দেশে এ দিনটি আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস হিসেবে পালন শুরু হয়। একুশে ফেব্রুয়ারি বিশ্বে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস হিসেবে স্বীকৃতি পাওয়ার পেছনের ঘটনা জানতে হলে আমাদের একটু পেছনে ফিরে তাকাতে হবে।

মহান ভাষা আন্দোলনের দিন হিসেবে একুশে ফেব্রুয়ারি প্রতিবছরই মর্যাদার সঙ্গে বাংলাদেশসহ বিশ্বের অনেক দেশে পালিত হয়ে আসছে, উপস্থিতি ছিলেন বঙ্গবন্ধু স্মৃতি সংসদ ছাত্র ফেডারেশন ফরিদপুর জেলা শাখার যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক ও সালথা উপজেলার সাধারন সম্পাদক ফিরোজ খান রাজ.সাংগঠনিক সম্পাদক প্রিন্স মুসা.জেলা শাখার যুগ্ন সাধারণ যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক অন্তর রায় রনি.জেলা শাখার সহ সম্পাদক সাজ্জাদ খান রাজ.জেলা শাখার উপ শিক্ষা বিষয়ক আকাশ সাহা.সালথা উপজেলা শাখার সহ সভাপতি ফয়সাল খান রায়ান সহ অনন্য নেতৃবৃন্দ.