সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে ঘোড়াশালে আজ থেকে শুরু হলো খোলা মাঠে বাজার


বিল্লাল হোসেন, পলাশ নরসিংদী: মঙ্গলবার, ১৪ এপ্রিল ২০২০ : মরণঘাতী করোনাভাইরাস সংক্রমণ এড়াতে নরসিংদীর পলাশ উপজেলার ঘোড়াশাল পৌর শহরের দুটি বাজার আজ মঙ্গলবার (১৪ এপ্রিল) থেকে খোলা মাঠে স্থানান্তর করা হয়েছে। নিরাপদ দূরত্ব বজায় রেখে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য কেনাকাটার জন্য ঘোড়াশাল পৌর প্রশাসন ও পুলিশ প্রশাসনের যৌথ উদ্যোগে ঘোড়াশাল বাজার পাশের ঈদগাহ মাঠে ও সাদ্দাম বাজার পৌর ঈদগাহ মাঠে স্থানান্তর করা হয়।

করোনা মহামারী শেষ না হওয়া পর্যন্ত প্রতিদিন সকাল ৭টা থেকে বেলা ১২টা পর্যন্ত এই বাজার বসার কথা রয়েছে। সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায় স্থানান্তরিত বাজারে দোকান স্থাপনের পর্যাপ্ত জায়গা রয়েছে। এই রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত নিরাপদ দূরত্ব মেনে ক্রেতারা নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য ক্রয় করছেন। কথা হয় বাজার করতে আসা নাঈম খান নামে এক ক্রেতার সাথে। তিনি জানান, করোনা প্রতিরোধ ও সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিতকরণে এমনটি উদ্যোগ সত্যিই প্রশংসনীয়।

তবে বেলা বাড়ার সাথে সাথে ক্রেতা বেড়ে যেতে পারে। ঠিক সেই মুহূর্তে কতটুকু নিরাপত্তা বজায় থাকবে সে বিষয়টি প্রশ্ন থেকে যায়। নিরাপত্তা দূরত্ব নিশ্চিতকরণে পুলিশ প্রশাসন, পৌর প্রশাসনসহ বাজার কমিটির পক্ষ থেকে মনিটরিং জোরদার করা প্রয়োজন। ঘোড়াশাল বাজারের পাইকারি ব্যবসায়ী মোঃ আজিজুল্লাহ আজি বলেন, সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার জন্য পৌরসভা ও পুলিশ প্রশাসনের পক্ষ থেকে খোলা মাঠে বাজার বসার যে পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করেছে একে সাধুবাদ জানাই।

ব্যবসায়ীদের কিছু সাময়িক সমস্যা হলেও সবাই নিয়ম মেনে বাজার করলে করোনাভাইরাস প্রতিরোধে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। ঘোড়াশাল পৌর মেয়র আলহাজ্ব শরীফুল হক বলেন, দেশের এই কঠিন পরিস্থিতিতে নিরাপদ ও সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য ক্রয় করতে সবাই মিলে খোলা মাঠে বাজার স্থানান্তরিত করেছি। বাজার কমিটিকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে তারা যেন এই বিষয়গুলো বিবেচনা করে তা নিশ্চিত করে।

ঘোড়াশাল পৌরসভার পক্ষ থেকেও বাজার দুটিতে মনিটরিং অব্যাহত থাকবে। আমরা পৌরবাসীকে আহ্বান করবো তারা যেন নিয়ম মেনে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্য ক্রয় করে।