সাপাহারে ইউএনও’র হস্তক্ষেপে বাল্যবিবাহ বন্ধ ছেলে পক্ষের জরিমানা 

আবু বক্কার,সাপাহার (নওগাঁ) প্রতিনিধি: নওগাঁর সাপাহারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কল্যাণ চৌধুরীর হস্তক্ষেপে বাল্যবিবাহ বন্ধ করা হয়েছে।
এসময় ভ্রাম্যমান আদালতে ছেলেপক্ষের ৩০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

জানা গেছে,  বুধবার বেলা ১১টার দিকে উপজেলার ধাতালপাড়া গ্রামের তহুরুল ইসলামের ছেলে আব্দুর রাকিব উপজেলার গোপালপুর হরতকী গ্রামের ফারুক হোসেনের অপ্রাপ্ত বয়স্ক কণ্যা (১৭) কে বিবাহ করতে যায়। পরে বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে সরকারি বিধিনিষেধ অমান্য করে বিয়ে রেজিস্ট্রার না করে শুধু ইসলামি শরীয়ত অনুযায়ী বিয়ে করে নিজ বাড়িতে নিয়ে আসে।

বিষয়টি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা গোপন সংবাদে জানতে পারলে সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে ঘটনাস্থলে গিয়ে অপ্রাপ্ত বয়সে বিয়ে করার দায়ে ভ্রাম্যমাণ আদালতে ছেলে পক্ষের ৩০ হাজার টাকা জরিমানা করেন। এসময় ওই মেয়েকে নিজ বাড়িতে পৌঁছে দেওয়ার লক্ষ্যে স্থানীয় ইউপি সদস্য মিজানুর রহমান চৌধুরীর হেফাজতে প্রদান করেন। এসময় মেয়ের প্রাপ্ত বয়স্ক হওয়া পর্যন্ত বিয়ে স্থগিত করা হয়েছে বলে জানান উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কল্যাণ চৌধুরী।