সন্ত্রাসী হামলার ঘটনায় মামলা করায় বাদীর বসতঘরে ফের হামলা ভাংচুর ও লুটপাট\ নারীসহ আহত ৫

আবুল হাসনাত বাবুল, নোয়াখালী: নোয়াখালীতে সন্ত্রাসী হামলার ঘটনায় মামলা করায় বাদীর বসতঘরে ঢুকে ফের হামলা, ভাংচুর ও লুটপাট করেছে সন্ত্রাসীরা। এসময় বাদী ও নারীসহ ৫জন গুরুতর আহত হয়েছে। এ ঘটনায় সুধারাম মডেল থানায় ৯ জনকে আসামী করে একটি মামলা হয়েছে বলে
জানিয়েছে ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা তদন্ত (ওসি) টমাস বড়–য়া।

রবিবার সন্ধ্যায় সদর উপজেলার ২নং দাদপুর ইউনিয়নের হুগলি এলাকায় আলি মিয়ার বাড়ীতে স্থানীয় সন্ত্রাসীরা এ হামলার ঘটনা ঘটিয়েছে। আহতরা হলেন- মোঃ ফারুক হোসেন(৫৫), আয়েশা বেগম(৪৮), মোঃ ফরহাদ(৩০), মোঃ ফয়সাল(৩৫), মমিনা বেগম(২৪)। আহতদেরকে নোয়াখালী ২৫০শয্যা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

স্থানীয় এলাকাবাসী ও ভুক্তভোগী মামলার বাদী মোঃ ফারুক হোসেন জানান, গত বুধবার পূর্ব শত্রতার জের ধরে গাছ থেকে নারিকেল পাড়ার ঘটনাকে কেন্দ্র করে হাফেজ আব্দুল ওয়াদুদ তার স্ত্রী রেহানা আকতার, ছেলে আল এমরান সিদ্দিক রাহিসহ বহিরাগত আরো ৮/১০ সন্ত্রাসী হাতে দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে পূর্বপরিকল্পিত ভাবে আমার বসত বাড়ীতে ঢুকে হামলা ভাংচুর, লুটপাট ও আলমারীর ডয়ার ভেঙ্গে স্বর্ণালংকারসহ নগদ টাকা পয়সা নিয়ে যায়।

এসময় তাদেরকে বাঁধা দিতে গেলে আমাকেসহ ঘরের ভিতরে থাকা আমার স্ত্রী, দুই ছেলে ও ছেলের বৌসহ ৬/৭ জনকে শালিহীনতাসহ পিটিয়ে ও কুপিয়ে গুরুত্ব আহত করেছে। আমাদের চিৎকার শুনে আশপাশের লোকজন দৌড়ে আসলে তারা পালিয়ে যায়। পরে আহত গুরুতর সবাইকে নোয়াখালী ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করেছে।

এঘটনায় আমি বাদী হয়ে সুধারাম থানা একটি মামলা করেছি। এবিষটি জানতে পেরে তারা আবারো সন্ত্রাসী কায়দায় আজকে আমার বসতঘরে জোরপূর্বক ঢুকে তাদের বিরুদ্ধে কেন মামলা করেছি এ কথা বলে ঘরের ভিতরে হামলা, ভাংচুর ও লুটপাট করেছে এবং পূর্বের মতো আমাকেসহ ঘরের ভিতরে থাকা নারী পুরুষ সবাইকে পিটিয়ে ও কুপিয়ে