শেরপুরের নালিতাবাড়ীতে প্রান্তিক কৃষকের ধান কেটেদিলেন পুলিশ ও কমিউনিটি পুলিশিং ফোরামের সদস্যরা।

এম এ কাশেম জেলা প্রতিনিধি: “মানবিক পুলিশের চোখে জনতার আকাঙ্খা লেখা থাকে,কৃষকের পাশে আছে পুলিশ”এই স্লোগানকে সামনে রেখে আজ ৬ মে,বুধবার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত উপজেলার নন্নী ইউনিয়নের নিশ্চিন্তপুর গ্রামের কৃষকের ৮৫ শতক জমির  পাকা ধান কেটে বাড়ি পৌঁছে দেন।

এ ব্যাপারে নালিতাবাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা বছির আহমেদ বাদল জানান, জেলা পুলিশ সুপার মহোদয়ের নির্দেশনায় আমরা প্রান্তিক-দরিদ্র কৃষকদের পাকা বোরোধান কেটে বাড়িতে পৌছে দিচ্ছি। এরই অংশ হিসেবে নন্নীর  নিশ্চিন্তপুর গ্রামের আব্দুল জলিল, যিনি ঢাকায় রিকশা চালান সকালে তার ৫০ শতক জমির ধান কাটতে আসি।

এখানে এসে দেখি বয়স্ক ও দরিদ্র কৃষক নূর ইসলাম একাই তার ৩৫ শতক জমির ধান কাটতে নেমেছেন। এমতাবস্থায় আমরা সবাই মিলে তার জমির ধানও কেটে দেই। সুফলভোগী কৃষক আব্দুল জলিল বলেন,আর্থিক অভাবে জমিতে পাকা ধান কাটতে পারছিলাম না,তাই সহযোগিতা চাইলে থানা পুলিশ ১৫ জন এবং পুলিশিং ফোরামের ৪০ জন মিলে আমার ধান কেটে দেয় এতে আমি অত্যন্ত খুশি।

জেলা পরিষদ সদস্য, নন্নী ইউনিয়ন আ’লীগের সাঃ সম্পাদক এবং উপজেলা কমিউনিটি পুলিশিং ফোরামের সাঃ সম্পাদক বলেন,এলাকার সংসদ সদস্য অগ্নিকন্যা বেগম মতিয়া চৌধুরীর পরামর্শক্রমে থানা পুলিশসহ পুলিশিং ফোরাম সদস্যদের নিয়ে এ ধান কাটা হয়।পর্যায়ক্রমে ধান কাটতে অসহায় অন্যরা যোগাযোগ করলে ধান কেটে দেওয়া হবে আশ্বস্থ করেন। এসময় সহকারী পুলিশ সুপার নালিতাবাড়ী সার্কেল জাহাঙ্গীর আলম, উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা আলমগীর কবির উপস্থিত ছিলেন।