যশোরের শার্শায় সুদে দেনার দায়ে যুবকের আত্মহত্যা

যশোর প্রতিবেদক: যশোরের শার্শায় সুদের দেনার জ্বালা সহ্য করতে না পেরে ফ্যানের সাথে গলায় গামছা পেচিয়ে ঝুলে আত্মহত্যা করেছে শামীম হোসেন (৩২) নামের যুবক। ঘটনাটি ঘটেছে রোববার ভোর রাতে। নিহত শামীম শার্শা উপজেলার বেড়ি নারায়নপুর পশ্চিমপাড়ার হাবিলুর রহমানের ছেলে।

নিহতের পিতা হাবিলুর রহমান জানান, শামীম নাভারণ বাজারে কাপড়ের ব্যবসা করত। ব্যবসাকালীন সময়ে সে কাউকে না জানিয়ে বিভিন্ন জনের কাছ থেকে চড়া সুদে টাকা ধার নেয়। পরে নিজের ব্যবসায় গুটিয়ে নেয়ার পর জানতে পারলাম সে অনেক টাকার দেনা। ছেলের বউ বাপের বাড়ি থাকায় অনেক রাত পর্যন্ত তার সাথে গল্প করে আমরা ঘুমিয়ে পড়ি। সকালে ঘুম থেকে উঠতে দেরি দেখে ডাকাডাকি করে সাড়া না পেয়ে দেখতে পাই ফ্যানের সাথে তার দেহ ঝুলছে। চিৎকার করলে এ সময় স্থানীয়রা এসে তার লাশ উদ্ধার করে।

সূত্রে জানা যায়, শনিবার বাজারে পাওনাদারেরা আটকিয়ে রেখে টাকার জন্য চাপ সৃষ্টি করে। শার্শা থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) বদরুল আলম খান মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, লাশটি ময়না তদন্তের জন্য যশোর মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।