ময়মনসিংহের ভালুকায় বেতনের দাবিতে শ্রমিক বিক্ষোভ, হামলায় ৩ পুলিশ সহ আহত ২৫।

গোলাম কিবরিয়া পলাশ, ময়মনসিংহ জেলা প্রতিনিধি: ময়মনসিংহের ভালুকায় বেতনের দাবিতে শ্রমিক বিক্ষোভ, হামলায় ৩ পুলিশ সহ আহত ২৫ মহাসড়ক অবরোধ ট্রাকচাপায় নিহত ২। ময়মনসিংহের ভালুকায় শ্রমিক ছাঁটাইয়ের প্রতিবাদ ও বেতনের দাবিতে শ্রমিক বিক্ষোভ ও ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়ক অবরোধ করে শ্রমিকরা বিক্ষোভ শুরু করলে, দুই পক্ষের মাঝে ইটপাটকেল নিক্ষেপ, হামলা ও মারপিটের ঘটনা ঘটেছে।

পরে শিল্প পুলিশ লাঠিচার্জ ও ৬০রাউন্ডে টিয়ারসেল ও রাবার বুলেট নিক্ষেপ করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।ওই ঘটনায় তিন পুলিশ সদস্যসহ কমপক্ষে ২৫জন আহত হয়েছে। ঘটনার সময় আত্মরক্ষার্থে মহাসড়ক পার হতে গিয়ে ট্রাকচাপায় দুই শ্রমিক নিহত হয়েছেন। সোমবার (০৬ এপ্রিল) সকালে উপজেলার মাস্টারবাড়ি এলাকায় ক্রাউন ওয়ার্স (প্রাঃ) লিমিটেডে ওই ঘটনাটি ঘটে।

পুলিশ প্রশাসন ও স্থানীয় একাধিক সূত্রে জানা যায়, বিজিএমই ঘোষিত বিগত ২৬ মার্চ তারিখ থেকে ৪এপ্রিল পর্যন্ত কারখানা শর্তসাপেক্ষে ছুটি দেওয়ার পরও ক্রাউন ওয়ার্স প্রাঃ লিঃ. শ্রমিকদেরকে দিয়ে কাজ করানো হয়। ওই সময় কাজে যোগদান না করায় গত রোববার পাঁচ শতাধিক শ্রমিককে মিল কর্তৃপক্ষ ছাঁটাই করেন। সোমবার শ্রমিকরা কাজে যোগদান করতে এসে দেখে গেইটের সামনে কারখানা বন্ধের নোটিশ টানানো রয়েছে। ঘটনার সময় শ্রমিকরা মিল কর্তৃপক্ষের কাছে গত মাসের বেতন দাবি করে।

কিন্তু কর্তৃপক্ষ আগামী ৮এপ্রিল বেতন দিতে চাইলে শ্রমিকরা তা প্রত্যাখান করে তাদের দাবি আদায়ে ঢাকা ময়মনসিংহ মহা সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ শুরু করেন। এ সময় শ্রমিকরা কারখানার দিকে ইটপাটকেল নিক্ষেপ করতে থাকে। খবর পেয়ে শিল্প পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে প্রথমে শ্রমিকদের শান্ত করার চেষ্টা চালায়। এ ঘটনায় শ্রমিকরা নিয়ন্ত্রণে না আসায় পুলিশ লাঠিচার্জ, ৩০রাউন্ড টিয়ারসেল ও ৩০ রাউন্ড রাবার বুলেট নিক্ষেপ করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন।

একই সময় অ্যাডমিন বিভাগসহ কর্মকর্তাদের নেতৃত্বে মিল থেকে বের হয়ে আসা স্থানীয় ভাড়াটিয়া লাঠিয়াল বাহিনী শ্রমিকদের উপর হামলা চালিয়ে শ্রমিকদের বিভিন্ন স্থান থেকে ধরে এনে তাদেরকে বেধরক লাঠিপেটা করে। ওই সময় ছবি তুলতে গেলে মিলের গুন্ডা বাহিনী যুগান্তরের স্থানীয় প্রতিনিধি মোঃ জহিরুল ইসলাম জুয়েলের মোবাইল,ক্যামেরা আইডি কার্ড ছিনিয়ে নেয়। তারপর শিল্প পুলিশ জোন-৫ এর পুলিশের সহায়তায় তা উদ্ধার করা হয়।

ঘটনার সময় মালিক পক্ষের ধাওয়া খেয়ে আত্মরক্ষার্থে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়ক পার হওয়ার সময় ঢাকাগামী একটি ট্রাকচাপায় দুইজন শ্রমিক নিহত হন। নিহতের একজন ময়মনসিংহের ফুলপুর উপজেলার মোঃ আবদুল রহিমের ছেলে ক্রাউন ওয়ার কারখানার শ্রমিক মোঃ হারুন অর রশিদ। উনার আইডি নম্বর এমজিটিই ০০৪১৭১। অপর জন স্কয়ার ফ্যাশনের শ্রমিক ময়মনসিংহের গৌরীপুর উপজেলার চিয়ারকান্দা গ্রামের মোঃ ফয়েজ উদ্দিনের ছেলে মোঃ জুয়েল (২৪)।

হাইওয়ে পুলিশ নিহতদের লাশ উদ্ধার করে ফাঁড়িতে নিয়ে আসেন। কাখানার শ্রমিকরা জানায়, গত রবিবার পর্যন্ত তারা কাখানায় খোলা ছিল। পুর্বে নোটিশ ছাড়াই সোমবার সকালে কারখানায় কাজ করতে এসে দেখে গেইটে কারখানা ১৪এপ্রিল পর্যন্ত বন্ধের নোটিশ টানানো রয়েছে। ওই সময় তারা বাড়ি যাওয়ার জন্যে গত মাসের বেতন দাবি করলে মিল কর্তৃপক্ষ তা দিতে অনিহা প্রকাশ করে। শিল্প পুলিশ জোন-৫ এর সহকারী পুলিশ সুপার জনাব, মোঃ নূরুন নবী জানান, শ্রমিকরা ছাঁটাইয়ের প্রতিবাদ ও বেতনের জন্য বিক্ষোভ শুরু করলে তাদেরকে শান্ত হওয়ার জন্য বলা হয়।

শ্রমিকরা ইটপাটকেল নিক্ষেপ শুরু করলে শ্রমিকদের ছত্রভঙ্গ করতে ৩০রাউন্ড টিয়ারশেল ও ৩০ রাউন্ড রাবার বুলের নিক্ষেপ করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনা হয়। এলাকার পরিবেশ বর্তমানে শান্ত রয়েছে বলে জানান পুলিশ প্রশাসন।