মোহাম্মদপুর ৩৪ নং ওয়ার্ডে অসহায় হতদরিদ্রদের মাঝে খাদ্য সহায়তা প্রদান

মোঃ ইব্রাহিম হোসেন, ষ্টাফ রিপোর্টারঃ করোনা ভাইরাসের আপাদকালীন সময়ে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার খাদ্য সহায়তা কার্যক্রমের আওতায় রাজধানী মোহাম্মদপুর ৩৪ নং ওয়ার্ডে অসহায় হতদরিদ্রদের মাঝে খাদ্য সহায়তা প্রদান করছে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের ৩১, ৩৩, ও ৩৪ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও মোহাম্মদপুর থানা আওয়ামী লীগের মহিলা বিষয়ক সম্পাদক রোকসানা আলম। আজ ১৫ জুন ২০২০ রোজ সোমবার মোহাম্মদপুর রায়ের বাজারে এ খাদ্য সহায়তা প্রদান করেন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, মোহাম্মদপুর থানা আওয়ামী লীগের সহ-প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক নুরুল হক মন্ডল, সদস্য নারগিছ আক্তার, ৩৪ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সংগ্রামী সভাপতি রবিউল আলম, সাধারণ সম্পাদক সিদ্দিকুর রহমান ভূইয়া, ৩৪ নং ওয়ার্ড যুব লীগের সভাপতি বিল্লাল হোসেন, ৩৪ নং ওয়ার্ড স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি হারুনুর রশিদ এবং সংবাদকর্মীসহ স্থানীয় গন্যমাণ্য ব্যক্তিবর্গ।

অসহায় হতদরিদ্রদের মাঝে খাদ্য সহায়তার সময় মোহাম্মদপুর থানার ৩৪ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি রবিউল আলম বলেন, সরকার হ্মমতায়, ঢাকা-১৩ (মোহাম্মদপুর-আদাবর ও শেরেবাংলা নগর) আসনের এমপি ও বিশিষ্ট রাজনীতিবিদ আলহাজ্ব মোঃ সাদেক খান এবং ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের ৩১, ৩৩, ও ৩৪ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর রোকশানা আলম, না থাকলে আমরা বুঝতেই পারতাম না সরকারি দল করি।

রবিউল আলম বলেন, ৩৪ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর শেখ মো. হোসেন খোকন মনোনয়ন ও নির্বাচন আওয়ামী লীগের করেছেন, খাদ্য সহায়তা ও ওএমএস কার্ড তার নিজস্ব বাহিনীর মাধ্যমে বিতরণ ও আত্নসাৎ যাই বলি করছেন। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার দেওয়া কমিটি তার কাছে ভালো না লাগায়, নিজস্ব দলও বানিয়ে নিয়েছেন।

তিনি আরো বলেন, সংরহ্মিত মহিলা কাউন্সিলর রোকশানা আলমের মাধ্যমে এই প্রথম ২০ টি ওএমএস কার্ড ৩৪ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ পেয়েছে। হতদরিদ্র কর্মীদের মাঝে বিতরণ হয়েছে, আবার আসলে আপনাদেরকে দেওয়া হবে। কর্মীদের কাছে হ্মমা চেয়ে নেন খাদ্য সহায়তা প্রয়োজন অনুপাতে না করতে পারার জন্য।

মোহাম্মদপুর থানার ৩৪ নং ওয়ার্ডের সাধারণ সম্পাদক সিদ্দিকুর রহমান ভূইয়া বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও সংসদ সদস্য আলহাজ্ব মোঃ সাদেক খান এবং মহিলা কাউন্সিলর রোকশানা আলমের কাছি চিরঋণি হয়ে থাকলাম অসহায় মানুষের পাশে থাকার সহায়তার জন্য। ভোট আমরা অনেকেই করেছি, সাদেক খানের মত বুকে ধারন করে নাই কোনো নেতা। আমরা ভাগ্যবান রোকশানা আলমের মত কাউন্সিলর ও আলহাজ্ব মোঃ সাদেক খানের মত সংসদ সদস্য পেয়েছি।

কাউন্সিলর রোকশানা আলম বলেন, আমি ৩১, ৩৩, ও ৩৪ নং ওয়ার্ড সংরহ্মিত আসনের কাউন্সিলর। আমার খাদ্য সহায়তা ও ওএমএস কার্ডের সংখ্যা কম, তিনটি ওয়ার্ড নিয়ে আমাকে চলতে হয়। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, মেয়র, সংসদ সদস্য আলহাজ্ব মোঃ সাদেক খান, মহানগর সভাপতি শেখ বজলুর রহমান আমার উপর যে গুরুদায়িত্ব দিয়েছেন, আপনাদের ভোট ও ভালোবাসার জন্য আমাকে বার বার আসতে হবে ৩৪ নং ওয়ার্ডে। এডভোকেট ফাহিম সাদেক খান ও ঐক্যবদ্ধ আওয়ামী লীগের কাছে আমি চিরঋণি। আপনাদের সকলের দোয়া চাই।

রোকশানা আলম আরো বলেন, করোনা ভাইরাস থেকে গোটা জাতিকে রক্ষায় সরকার অত্যন্ত সতর্কতার সহিত কাজ করে যাচ্ছে। করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় সরকারের নির্দেশিত আইনগুলো মেনে চলতে হবে। সুরক্ষা সামগ্রী ব্যবহার এবং সর্তকতাকে গুরুত্ব দিয়ে সবাই বাড়ীতে থাকতে হবে।