মানুষিক ভারসম্যহীন দম্পতির হৃদয় জুড়ানো ভালোবাসা।

দুজন মানুষিক ভারসম্যহীন দম্পতির এক হৃদয় জুড়ানো ভালোবাসার দৃশ্য।
নওগাঁর সাপাহার উপজেলা সদরের হাসপাতাল মোড়ে দুজন মানুষিক ভারসম্যহীন দম্পতির এক হৃদয় জুড়ানো ভালোবাসার ।

আবু বক্কার,সাপাহার (নওগাঁ) প্রতিনিধি: আজ ১৪ ফেব্রয়ারি দেশজুড়ে চলছে বিশ্ব ভালোবাসা দিবসের ডামাডল একই সাথে ঋতুরাজ বসন্ত বরণে তরুন প্রানে লেগেছে ফাগুনের রঙ। রঙের সাজ না থাকলেও আছে হৃদয় জুড়ানো ভালোবাসা মানুষিক ভারসম্যহীন সাদ্দাম ও চেরি দম্পতির। আজ শুক্রবার সকালে নওগাঁর সাপাহার উপজেলা সদরের হাসপাতাল মোড়ে আঃ রহমান ওরফে সাদ্দাম (৬০) ও আয়শা বিবি ওরফে চেরি (৫৫) নামে দুজন মানুষিক ভারসম্যহীন দম্পতির এক হৃদয় জুড়ানো ভালোবাসার দৃশ্য দেখা গেছে।

ওই দম্পতির সাথে কথা বলে জানা যায়, প্রায় ৩ ঘুগের সংসার তাদের। অবাভি সংসারে স্বাদ পুরনের সামর্থ না থাকলেও কমতি নেই তাদের ভালোবাসায়। গত ৫ দিন ধরে সহধর্মিনী চেরি বিবিকে বিভিন্ন জায়গায় খোঁজাখুঁজির পর আজ দেখা হয় দুজনের। স্ত্রীকে ক্ষুধার্থ অবস্থায় দেখে সেখানেই মাটিতে কাপড়ের বিছানায় শুয়ে দেন সাদ্দাম। স্ত্রীর ক্ষুধা নিবারনের জন্য সাদ্দাম ছুটে যান দোকানে খেচুড়ি ও মুড়ি এনে নিজ হাতে স্ত্রীর মুখে তুলে দেন তিনিও খান।

এমন ভালোবাসার দৃশ্য দেখে অনেকেই সেখানে অপলক দৃষ্টিতে দাড়িয়ে থাকেন। এসময় শাহজালাল নামে (ফার্মেসীতে কর্মরত) এক ব্যাক্তি তাদের প্রতিবেশি দাবী করে বলেন, এই দম্পতির বাড়ি উপজেলার শাহাবাজপুর গ্রামে। তাদের দুটি সন্তান ১ ছেলে থাকেন ঢাকাতে ১ মেয়ে বিবাহ সূত্রে শশুরালয়ে থাকেন।

অসহায় এই দম্পতির দেখভাল করার মত কেউ নেই। তিনি বলেন, চেরি বিবি গত ৩ বছর যাবৎ শীতকাল এলেই ২-৩ মাসের জন্য মানুষিক ভারসম্য হারিয়ে ফেলে এবং বাড়ি থেকে হারিয়ে যায়। তাকে খুঁজতে বিভিন্ন জায়গায় ছুড়ে বেড়ান তার স্বামী সাদ্দাম। সাদ্দাম নিজেও মানুষিক ভারসম্যহীন এছাড়াও অন্ধকোষ জনিত রোগে দীর্ঘ দিন ধরে ভুগছেন সাদ্দাম বলেও জানান তিনি।