মহান স্বাধীনতা দিবসে করোনা মুক্ত করতে মাঠে ছাত্রলীগ।


মহান স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে প্রানঘাতী করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে প্রতিদিনের ন্যায় আজও শহরের বিভিন্ন পয়েন্টে সাধারণ মানুষের মাঝে এবং বাড়িতে বাড়িতে নিজ হাতে জীবাণুনাশক স্প্রে, হ্যান্ড স্যানিটাইজার, মাস্ক, সচেতনতামূলক লিফলেট বিতরণ করেছেন, ময়মনসিংহ জেলা ছাত্রলীগের সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও ময়মনসিংহ মহানগর ছাত্রলীগ নেতা নওশেল আহমেদ অনি। বৃহস্পতিবার (২৬ মার্চ) সকাল থেকে তিনি এ কর্মসূচি শুরু করেন।

প্রতিদিন সকাল-বিকাল মোট দুইবার করে আগামী দিনগুলোতেও এ কার্যক্রম চলমান রাখবেন বলে জানান তিনি। সরেজমিন দেখা যায়, ময়মনসিংহ মহানগর ছাত্রলীগের বিভিন্ন ইউনিটের নেতাকর্মীদের মাঝেও মাস্ক, হ্যান্ড স্যানিটাইজার, লিফলেট, দেওয়া হয়, যা নগরের প্রত্যেকটা জায়গায় বিতরণ করেন ছাত্রলীগের কর্মীরা। এছাড়া নগরের বিভিন্ন সড়ক,যানবাহনে, বাসা বাড়িতে, প্রতিষ্ঠানের সামনে, উন্মুক্ত স্থানেও স্প্রে মেশিনের সাহায্যে তরল জীবাণুনাশক স্প্রে করেন তিনি।

এই উদ্যোগের ফলে নগর জীবাণুমুক্ত করার পাশাপাশি জনসচেতনতা বৃদ্ধিতেও কাজ করছেন। নগরের বাসিন্দা ও বাসা-বাড়ির সবাই এই কার্যক্রমকে সাধুবাদ জানাচ্ছেন। এ বিষয়ে নওশেল আহমেদ অনি বলেন, নগরের কোন মানুষ যাতে করোনায় আক্রান্ত না হয় তার দায়িত্ব আমাদের। নিজের অবস্থান থেকে জনগণকে সচেতন করার চেষ্টা করেছি। এ মহামারিতে আমাদের শহরের মানুষজন যাতে ভোগান্তিতে না পড়ে তা নিশ্চিত করার চেষ্টা করছি।

এসময় তাকে সহযোগীতা করেছেন ছাত্রলীগ নেতা শাহীন আলম, শাওন নাবিক, শাহরিয়ার মিশু, উবায়েদ উল্লাহ, রাজু, শরীফুল, মোস্তফা কামাল, নাজমুল, প্রিন্স সহ আরো অন্যান্য নেতাকর্মীরা। এদিকে ময়মনসিংহের বেশ কয়েকটি জায়গায়‍  সাবানসহ পানির ফিল্টারেরও ব্যবস্থা করেছেন ছাত্রলীগ নেতা অনি। রিকশাচালক, দিনমজুর ও পথচারীরা যাতে হাত ধুয়ে জীবাণুমুক্ত থাকতে পারে তার জন্য এ ব্যবস্থা করেন তিনি।

তিনি বলেন, রিকশাচালক, দিনমজুর ও পথচারীরা সবসময় বাইরে থাকার কারণে তাদের মাধ্যমে এ জীবাণু ছড়িয়ে পড়তে পারে। এ সকল লোকজন যাতে আক্রান্ত না হয় এবং তাদের মাধ্যমে যাতে অন্যদের মাঝে ছড়িয়ে পড়তে না পারে তার জন্য এ ধরনের ব্যবস্থা করা হয়েছে।