ফরিদপুরের সালথা’য় প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত,বাড়ী লকডাউন।

বিধান মন্ডল ফরিদপুর প্রতিনিধিঃ ফরিদপুর জেলার সালথা উপজেলায় প্রথম একজন করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছেন। মঙ্গলবার ১৯ মে, গণমাধ্যম কর্মীদের সাথে কথা বলে বিষয়টি নিশ্চিত করেন সালথা উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা: এস এম ইফতেখার আজাদ।
জানা যায় শাহাদত শেখ (২৩), তিনি ঐ গ্রামের রফিক শেখ এর ছেলে। শাহাদাত ফরিদপুর উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিগ্রি দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র, পাশাপাশি সে সদরপুর হাটকৃষ্ণপুরের একটি ফার্মেসীতে চাকুরী করতেন বলে তিনি ও তাঁর পরিবার পক্ষ থেকে জানানো হয়।
তবে তিনি কিভাবে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন সে বিষয়টি প্রাথমিকভাবে নিশ্চিত হওয়া যায়নি। সে বাড়িতে আসার পর তার শরীরে হালকা জ্বর ও গলা ব্যথা দেখা দেয় । পরে শনিবার ১৭ মে, তিনি সালথা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে গেলে ওখানকার দায়িত্বে থাকা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা: এস এম ইফতেখার আজাদ, তার নমুনা সংগ্রহ করে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজে করোনা ল্যাবে পাঠায়। আজ মঙ্গলবার ১৯ মে, পরীক্ষার রিপোর্টে তার শরীরে করোনা পজিটিভ পাওয়া যায়।
এদিকে করোনা আক্রান্ত ওই ব্যক্তিকে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ আইসোলেশন এ নিয়ে যাওয়া হয়েছে। এ’সময় ওই বাড়ি ও পাশের একটি বাজার লকডাউন করা হয়েছে। একই সঙ্গে তার সংস্পর্শে আসা পরিবারের ১৪ জনের নমুনা সংগ্রহ করা হবে পরীক্ষা করার জন্য। উল্লেখ্য, এর আগে ফরিদপুর জেলার সবক’টি উপজেলায় করোনা রোগী শনাক্ত হলেও একমাত্র সালথা উপজেলায় কোনো করোনা আক্রান্ত রোগী ছিল না।
উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা: এস এম ইফতেখার আজাদ সাংবাদিকদের বলেন, সকালে আমরা করোনা আক্রান্ত ব্যক্তির পজিটিভ রিপোর্ট হাতে পাই। তিনি বলেন, ওই ব্যক্তির হালকা জ্বর ও গলা ব্যথা ছিলো।
সালথা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ আলী জিন্নাহ বলেন, আমরা ঘটনাস্থলে গিয়েছিলাম। করোনা আক্রান্ত ব্যক্তির বাড়ী ও পাশের বাজার লকডাউন করা হয়েছে। এ ব্যাপারে সালথা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ হাসিব সরকার বলেন, করোনা আক্রান্ত ব্যক্তি তার বাড়ীর পাশের বাজারের সেলুনে গিয়ে চুল কাটিয়েছে। এ কারনে তার বাড়ী ও পাশের বাজার লকডাউন করেছি।