নওগাঁর সাপাহারে ইচ্ছের বিরুদ্ধে বাল্যবিয়ে দেয়ার চেষ্টা: রুখে দিলেন ওসি আব্দুল হাই


আবু বক্কার,সাপাহার (নওগাঁ) প্রতিনিধি: নওগাঁর সাপাহারে স্কুল পড়ুয়া রিনা কুজুর (১৪) নামে এক আদিবাসী ছাত্রীকে ইচ্ছের বিরুদ্ধে বিয়ে দেয়ার চেষ্টা রুখে দিলেন থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আব্দুল হাই। জানা গেছে, সোমবার দুপুরের দিকে উপজেলার খঞ্জনপুর বালিকা বিদ্যালয়ে অষ্টম শ্রেণী পড়ুয়া রিনা কুজুর (১৪) নামে এক আদিবাসী ছাত্রীকে ইচ্ছের বিরুদ্ধে জোর পূর্বক বিয়ে দেয়ার প্রস্তুতি চালায় তার বাবা-মা।

এমন অবস্থায় ওই ছাত্রী কোন উপায় অন্ত না পেয়ে তার বুদ্ধিমত্ত্বা কাজে লাগিয়ে বাড়ি থেকে পালিয়ে স্কুলে গিয়ে অবস্থান নেন। সন্ধায় এ খবর আসে ওসি আব্দুল হাই এর কাছে। তিনি তৎক্ষনাত ছুটে যান ঘটনা স্থল উপজেলার শিরন্টি বালুপাড়া গ্রামে ওই ছাত্রীর বাড়িতে। সেখানে ছাত্রী রিনা কুজুর তার বাবা মানিক চাঁন এবং মা মর্জিনা সহ গ্রামের বেশ কিছু লোকজন নিয়ে ওসি আব্দুল হাই বৈঠক বসেন।

এসময় তিনি তাদের কথা শুনেন এবং তার বাবা মা সহ উপস্থিত সবার উদ্দেশ্যে বাল্যবিবাহের কুফল সম্পর্কে আলোচনা করেন। অবশেষে বিয়ের বয়স পূর্ণ (প্রাপ্ত বয়স) না হওয়া পর্যন্ত ওই ছাত্রীর বিয়ে দিবেনা মর্মে অঙ্গীকার করেন তার বাবা মানিক চাঁন ও মা মর্জিনা। এ ঘটনায় পুলিশ প্রশাসনকে তথ্য দিয়ে সহযোগীতা করেন উপজেলা মাদক ও বাল্যবিয়ে বিরোধী কমিটি।