নওগাঁর চন্ডিপুর ইউনিয়নের মানবতার ফেরিওয়ালা আসলাম

নওগাঁ প্রতিনিধি: নওগাঁ সদর উপজেলার চন্ডিপুর ইউনিয়নের আওয়ামী লীগ নেতা মানবতার ফেরিওয়ালা আসলাম হোসেন দিনরাত খেটে যাচ্ছেন মানুষের সেবায়। তাঁর গড়ে তোলা তৃণমুল উন্নয়ন সংস্থা নামের বেসরকারী উন্নয়ন সংস্থাও (এনজিও) সেবা দিয়ে যাচ্ছে ইউনিয়নবাসীর। প্রতিটি ওয়ার্ডে তিনি গরীব দুখিদের খোঁজ নিয়ে যাচ্ছেন নিয়মিত। করোনাকালীন সময়ে নিজের ব্যাক্তিগত অর্থায়নে সেবা দিয়েছেন দিনমজুর, মধ্যবিত্ত সবাইকে। যেখানেই সমস্যা সেখানেই তিনি।

অবশ্য বিনিময়ে তিনি মানুষের বুক ভরা ভালবাসা ও দোয়াও পাচ্ছেন। মার্জিত ও ভদ্র স্বভাবের এ রাজনীতিবিদ ইউনিয়নবাসীর কাছে ভরসার প্রতীক হয়ে দাঁড়িয়েছে। গত ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনে ইউনিয়নবাসীর চাপেও চেয়াম্যান পদে নিজেকে প্রার্থী না করে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনায় দল মনোনিত প্রার্থীর বিজয়ে সর্বচ্চো শ্রম দিয়েছেন। ওই ইউনিয়নের চন্ডিপুর উত্তরপাড়ার আলমগীর হোসেন বলেন, যদি গভীর রাতেও কেউ সমস্যায় পড়ে আর আসলাম ভাই বিষয়টি জানতে পারেন,তাহলে তখনই ছুটে আসেন।

একই ইউনিয়নের শিমুলিয়া গ্রামের রুবিনা খাতুন নামের এক গৃহিনী বলেন,আমি গরিব মানুষ স্বামী অনেক আগেই মারা গেছে। টাকার অভাবে মেয়েকে বিয়ে দিতে পারছিলাম না। বিষয়টি জানতে পেরে আছলাম বাবাজি টাকা পয়সা খরচ করে নিজে উপস্থিত থেকে মেয়ের বিয়ে দিয়েছেন । আল্লাহ তার অবশ্যই ভাল করবেন। কথাগুলো বলতে বলতে কৃতজ্ঞতায় চোখ ছলছল করছিল।

বলিঘাট এলাকার আবুল হোসেন নামের এক বয়োজ্যেষ্ঠ লোক বলেন,চোখে ছানি পড়ায় কিছুই দেখতে পারছিলাম না। আসলাম আমার চোখের ছানি অপারেশন করার ব্যবস্থা করে দিয়েছেন। সে নিজেই আমাকে চিকিৎসকের কাছে নিয়ে গেছে। মানবতার ফেরিওয়ালা আসলাম হোসেনের সাথে কথা বলতে গেলে তিনি বলেন, ইউনিয়নবাসীর ভালবাসায় আমি সিক্ত। শুধু জনপ্রতিনিধি হলেই যে মানুষের সেবা করা যায় তা কিন্তু নয়। তিনি আরও বলেন, আমাদের সকলেরই উচিত মানুষ হিসেবে মানুষের পাশে দাড়ানো। নিঃস্বার্থ ভাবে মানুষের সেবায় নিজেকে উৎসর্গ করতে চাই।