দৌলতপুর অবৈধ বালু উত্তোলন বন্ধের প্রতিবাদে এলাকাবাসীর সংবাদ সম্মেলন ও মানববন্ধন হয়েছে।

কুষ্টিয়া, দৌলতপুর প্রতিনিধি: কুষ্টিয়া দৌলতপুর উপজেলার ফিলিপনগর ইউনিয়নের আবেদের ঘাট নামক স্থানে, নদী রক্ষা বাঁধ ও বসতবাড়ি রক্ষার স্বার্থে বালি কাটা বন্ধের দাবিতে সংবাদ সম্মেলন ও মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। সংবাদ সম্মেলনে বীর মুক্তিযোদ্ধা হায়দার আলীর সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন আওয়ামীলীগ নেতা শামছুল আলম, নাসির উদ্দিন, হাচিনুর রহমান,মাহাবুবুর রহমান,খাইরুল ইসলাম শিবুল, ইকবাল হোসেন, বীর মুক্তিযোদ্ধা নাজিম উদ্দিন, হাকিমুল ইসলামসহ অনেকেই। সংবাদ সম্মেলনে বক্তারা তাদের বক্তব্যে বলেন, এ শ্রেনীর প্রভাব শালী মহল নদীতে বালি উত্তলন করছে।

তাদের বাঁধা দিতে গেলে ভয় ভিতি দেখায়, বিষয়টি উপজেলা নির্বাহী অফিসার শারমিন আক্তারকে বার বার জানানো হলেও তিনি কোন ধরনের কোন পদক্ষেপ নেন নাই।এসময় বালু উত্তোলনকারীদের সাথে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের সম্পর্কিততার কথা বক্তব্য উঠে আসেন। অনুষ্ঠানের সভাপতি তার বক্তব্যে উল্লেখ করেন, এই বালি কাটার সাথে উপজেলা নির্বাহী অফিসার সরাসরি জড়িত আছে কারন আমরা বার বার বলার পরে কোন ব্যবস্থা নেন নাই। তিনি আরো জানান আমি উপজেলা নির্বাহী অফিসার শারমিন আক্তারকে মুঠোফোনে জানায় আপনি এখন আসেন দেখেন বালি উত্তলন হচ্ছে।

বলার দুই মিনিটের মধ্যে আমাকে বালি উত্তলন কারিরা ফোন দিয়ে বিভিন্ন ধরনের কথা বলেছে যাতে ইউএনও’র সম্পর্কিততা স্পষ্ট হয়। আমরা এই ইউএনও’র অপসারণের দাবি করছি। এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার শারমিন আক্তারের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করলে তিনি তার বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ মিথ্যা বলেন। কোন বালি ব্যবসায়ীর সাথে আমার কোন প্রকার জোকসাজস নেই । আমাদের ভ্রাম্যমাণ অভিযান নিয়োমিত অব্যহত আছে এবং আগামীতে ও চলমান থাকবে।