দৌলতপুরে ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ “পরিবারের দাবি পরিকল্পিত ভাবে হত্যা করা হয়েছে তাউস কে!


আব্দুল আলীম সাচ্চু: কুষ্টিয়া দৌলতপুর উপজেলার আদাবাড়ীয়া ইউনিয়নের গরুড়া ঘাট পাড়া গ্রামের আজাহার আলীর ছেলে তাউসের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। এলাকাবাসী জানান শুক্রবার সকালে নিহতের মরদেহ গাছে ঝুলতে দেখে স্থানীয়রা পুলিশকে খবর দেয়। খবর পেয়ে দৌলতপুর থানা পুলিশ নিহত তাউসের লাশ শুক্রবার দুপুর ১২ টার দিকে উদ্ধার করে।

এ বিষয়ে এলাকাবাসী ও তাউসের পরিবারের লোকজনের দাবি, তাউস গরুড়া ঠাকুর পাড়া গ্রামের এক গৃহবধূর সাথে পরকিয়ার সম্পর্ক ছিল। তাউসের ভাই জানান আমার ভাই আত্মহত্যা করতে পারেনা, আমি ও আমার ভাই বৃহস্পতিবার বিকালে সবজী মালামাল ক্রয় করি, আত্ম হত্যা করার মত কোন কিছু তার ভিতর দেখি নাই । আমার ধারণা তাকে হত্যা করা হয়েছে কারন বাড়ী ছাড়া ২ কিলোমিটার দুরে এসে কেন আত্মা হত্যা করবে আমি মানতে পারিনা।

সবজী ব্যবসায়ী তাউসের ,স্ত্রী জানান আমার স্বামীর প্রায় ৪ বছর ধরে আরিফুল এর স্ত্রীর সাথে পরকীয়ার সম্পর্ক, সে আমার স্বামীকে প্রায় সময় ফোন করে ডাকতো গতকাল আমার স্বামী সন্ধ্যায় বাড়িতে আসলে কে যেন ফোন দিল আর চলে গেল। আমার ধারনা ঐ মেয়ে সব করেছে, কেন নই এত জায়গা থাকতে তার বাড়ির পিছনে কেন ফাস নিবে। দৌলতপুর থানার ওসি এস এম আরিফুর রহমান এ বিষয়ে বলেন, থানা পুলিশ লাশ উদ্ধারকরেছে। ময়নাতদন্তের জন্য কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে তদন্ত শেষে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।