দৌলতপুরে জাতীয় পার্টির জাতীয় যুব সংহতির ত্রি-বার্ষিক সম্বেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

ছবি : কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে জাতীয় যুব সংহতির ত্রি-বার্ষিক সম্বেলনে অতিথিবৃন্দ।
ছবি : কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে জাতীয় যুব সংহতির ত্রি-বার্ষিক সম্বেলনে অতিথিবৃন্দ।

কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে জাতীয় পার্টির জাতীয় যুব সংহতির ত্রি-বার্ষিক সম্বেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। দৌলতপুর উপজেলা জাতীয় যুব সংহতির আয়োজনে বুধবার দুপুরে উপজেলার আল্লারদর্গা নুরুজ্জামান বিশ্বাস অডিটোরিয়ামে এ সম্বেলন অনুষ্ঠিত হয়। সম্বেলনে প্রধান অতিথি ছিলেন জাতীয় যুব সংহতির কেন্দ্রীয় সহ-সভাপিত হেলাল উদ্দীন। সম্বেলনে দৌলতপুর উপজেলা জাতীয় যুব সংহতির আগামী ৩ বছরের জন্য নুর আলমকে সভাপতি ও নুরুন্নবী নবীনকে সম্পাদক ঘোষনা করা হয়।

জাতীয় যুব সংহতির দৌলতপুর উপজেলার আহবায়ক নুরে আলমের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি ছিলেন জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় কমিটির তথ্য গবেষনা সম্পাদক সুমন আশরাফ, কুষ্টিয়া জেলা জাতীয় পার্টির সভাপতি নাফিজ আহমেদ খান টিটু, কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ও জেলা জাতীয় পার্টির সাধারন সম্পাদক শাহরিয়ার জামিল জুয়েল, জেলা জাতীয় পার্টির সহ-সভাপতি ও সাবেক উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আলী আকবর, যুগ্ম সাধারন সম্পাদক রিনা নাসরিন, কুষ্টিয়া জেলা জাতীয় যুব সংহতির আহবায়ক প্রকৌশলী ফিরোজ-উজ-জামান, সহস্য সচিব কাজী আব্দুল বাকী, সহ-সভাপতি দেলোয়ার হোসেন, জেলা জাতীয় পার্টির মানবাধিকার বিষয়ক সম্পাদক নাজমুল হুদা, দৌলতপুর উপজেলা জাতীয় পার্টির আহবায়ক আব্দুস সাত্তার, যুগ্ম সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল মামুন পিয়ার।

সম্বেলনে বক্তারা বলেন, এরশাদ ৯ বছর সফলতার সঙ্গে দেশ ও মানুষের জন্য কাজ করেছেন, তিনি স্বৈরাচার হতে পারেন না। দেশের মানুষ জাপাকে আরো শক্তিশালী দল হিসেবে দেখতে চায়। ৯১ সালের পর থেকে জুলুম-নির্যাতন আর হামলা-মামলা দিয়ে জাপাকে দুর্বল করার চেষ্টা হয়েছে। জাতীয় পার্টিই তৃতীয় বৃহত্তম রাজনৈতিক শক্তি। শত বাধা উপেক্ষা করে জাপা রাজনীতির মাঠে থাকবে।

নেতারা বলেন, অন্যান্য যুব সংগঠনের মত জাতীয় যুব সংহতির নেতারা সন্ত্রাস লালন করেনি, ক্যাসিনো ব্যবসা করেনি, হুন্ডা-গুন্ডা লালন-পালন করেনি। উপজেলা জাতীয় যুব সংহতির সদস্য সচিব দিনার হোসেন বুলবুলর সঞ্চালনায় সম্বেলনে জাতীয় পার্টির নেতারা ছাড়াও উপজেলা জাতীয় যুব সংহতির কয়েক হাজার নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন।