দশমিনায় ঝড়ের কবলে লন্ডবন্ড মনির গাজীর বসত ঘর

মো. বেল্লাল হোসেন : পটুয়াখালী জেলার দশমিনা উপজেলায় ২০ সেপ্টেম্বর মধ্যরাতে আকর্ষিক ঝড়ে চাম্বুল গাছ পরে কাটাখালীর হতদরিদ্র মনির গাজীর বসত ঘর ভেঙ্গে মুছরে যায়। দশমিনা উপজেলার কাটাখালী ০৯ ওয়ার্ডে বসবাস মনির গাজির,পেশায় ডে-লেবার। দিন আনে দিন খায় পুঁজি বলতে  ছিলো একটি গরু। গরুটি বিক্রি করে একমাস আগে বসত ঘরটি নির্মান করেন।

সেই বসত ঘরটি ২০ সেপ্টেম্বর রাত আনুমানিক ০৩.০০ ঘটিকার সময় আকর্ষিক ঝড়ে বসত ঘরের পূর্ব পাশে একটি চাম্বুল গাছ ঘরের উপর পরে ঘরটি ভেঙ্গে মুছরে যায়।  ঐ সময় বসত ঘরে  ছিলো স্ত্রী, পুত্র,কন্যা ও মনির গাজী নিজে।  ঘরের উপর  চাম্বুল গাছ পরায় পরিবারের কোন হতাহতের ঘটনা ঘটেনি।মনির গাজীর চোখে-মুখে হতাসার ছাপ।  কন্ঠে নির্ভাক ভাষায় বলেন, আমি স্ত্রী সন্তান নিয়ে কোথায় যাবো,কে দেবে আশ্রয়।

আমার এক মাত্র মাথা গোজার ঠাই বসত ঘরটি ঝড়ের কবলে  চাম্বুল গাছ পরে ভেঙ্গে মুছরে যায় । আমার শেষ সম্বল ছিলো একটি গরু, গরুটি বিক্রি করে ঘরটি নির্মান করিছি কয়েক দিন আগে। দায় দেনায়  বর্তমানে জর্জিত কি করবো ভেবে পাচ্ছিনা।

কোথায় থাকবো স্ত্রী, কন্যা,পুত্র সন্তান নিয়ে। আমার এমন কোন সম্বল নেই যা বিক্রি করে আবার নতুন করে ঘর নির্মান করবো।  মাননীয় এমপি মহোদয় এবং দশমিনা উপজেলা নির্বাহী অফিসার মহোদয়ের কাছে আমার আকুল আবেদন মাথাগোজার ঠাই এবং স্ত্রী , পুত্র,কন্যা সন্তান দিয়ে একটি ছোট ঘর করে থাকতে পারি তাহার ব্যবস্হ করবেন।