দশমিনায় গলায় ফাঁস দিয়ে গৃহবধূর আত্মহত্যা।

মোঃ বেল্লাল হোসেন: পটুয়াখালী জেলার দশমিনা উপজেলায় বাশঁবাড়ীয়া ইউনিয়নে চরহোসনা বাদ গ্রামে ৮মে সকাল আনুমানিক ১০ঘটিকার সময় নিজ ভাড়া বাসায় ঘরের আড়ার সাথে ফারজানা আক্তর মিতু(১৬),স্বামী মোঃমহিউদ্দিন ,পিতা:ফারুখ মোল্লা, গ্রাম: চরহোসনাবাদ, ইউনিয়ন: বাশবাড়ীয়া গলায় ওড়ানায় ফাঁস দিয়ে মৃত্যুর ঘটনা গটে।

মিতুর বড়ভাই শাহিন মোল্লা আমাদের যানায় মোঃ মহিউদ্দিন, পিতা:আ: আজিজ ,মাতা: মিনারা বেগম, গোডাউন রোড়, পৌরসভা: গলাচিপা, জেলা:পটুয়াখালী দশমিনা উপজেলার চরহোসনাবাদ গ্রামে সোয়ামিলে কাজ করতো।

বিগত ৬-৭মাস পূর্বে মোঃ মহিউদ্দিন ,পিতা:আ:আজিজ,মাতা:মিনারা বেগম, গোডাউন রোড়, পৌরসভা: গলাচিপা,  জেলা:পটুয়াখালী আমার বোনকে আমাদের পরিবারের অমতে বিবাহ করে। বিবাহের পর চরহোসনাবাদ গ্রামে মিজানুর রহমান তিতাস এর ঘরে বাসা ভাড়া করে থাকতো। তিনি আরো যানান কারনে অকারনে আমার বোন মিতুকে প্রয়াই মারধর করতো।

মিতুর বড় ভাই শাহিন মোল্লা এবং মোঃ শামিম মোল্লা বলেন আমার বোন গলায় ফাসঁ দেয়নি, মহিউদ্দিন মারধর করে গলায় ফাঁষ দিয়ে আমার বোন(মিতু)কে ঘরের আড়ার সাথে ঝুলিয়ে রাখে। ঘটনার কথা শুনে দশমিনা থানার অফিসার ইনচার্জ এস এম জালাল উদ্দিন ,এস আই শামিম সহ পুলিশ সদস্যরা ঘটনা স্থলে আসে এবং ঘটনা স্থল থেকে মিতুর স্বাসী মহিউদ্দিন কে জিঞ্জাসাবাদের জন্য নিয়ে জায় । মিতুর মরদেহকে ময়না তদন্তের জন্য পটুয়াখালী পাঠানো হবে বলেন জানান।