ঝড়ে ঘর ভেঙে একই পরিবারের তিনজনের মৃত্যু

এইচ এম আরিফ, ভোলা (দক্ষিন) প্রতিনিধি: ভোলার চরফ্যাসন উপজেলার তীব্র ঝড় ও বৃষ্টিতে ঘর চাপা পড়ে দুই শিশু সন্তানসহ মায়ের মৃত্যু হয়েছে। মঙ্গলবার মধ্যরাত ১২টার দিকে উপজেলার চর মানিকা ইউনিয়নের চর কচ্চপিয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। মারা যাওয়া মা ও দুই সন্তানের নাম রিংকু বেগম (৩০) ও তার দুই ছেলে জোনায়েদ (৭) এবং তানজিদ (৪)। রিংকু বেগম এলাকার মৎসজীবি হানিফ পাটোয়ারির স্ত্রী ।

স্থানীয় সূত্রে জানাযায়,  মঙ্গলবার রাতে পরিবারের ২ সন্তান নিয়ে রিংকু বেগম ঘুমিয়ে পড়েছিলো। এ সময় কচ্ছপিয়া এলাকায় আকস্মিক টর্নোডো ঝড়ে তাদের ঘরটি বিধ্বস্ত হয়।  এতে ঘুমনাবস্থায় ঘর চাপায় ঘটনাস্থলেই মা-ছেলেসহ ৩ জনের মর্মান্তিক মৃত্যু হয়। আরো জানাযায়, নিহতের পরিবারের সদস্যরা ঢালচর এলাকার বাসিন্দা ছিলেন। কিছুদিন পূর্বে চর কচ্চপিয়া গ্রামে তারা নতুন ঘর তুলেছে।

অসমাপ্ত নতুন ঘরের কাঠপালা মাথার উপরে পাটাতনের উপরে রাখা ছিল। ঝড়টি অত্যন্ত শক্তিশালি হওয়ায় উপরে রাখা কাঠের চাপা পড়ে নিহতরা। এছাড়াও ঝড়ে আশেপাশে বেশ কিছু গাছপালা ভেঙ্গে যায়।

দক্ষিণ আইচা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃহারুন অর রশিদ বলেন, ঝড়-বৃষ্টিতে ঘর ভেঙে দুই সন্তানসহ মা মারা গেছে। ঝড়টি অত্যন্ত শক্তিশালি হওয়ায় উপরে রাখা কাঠের চাপা পড়ে নিহতরা। পুলিশ ঘটনাস্থল গিয়ে লাশ উদ্ধার করে। নিহত তিনজনের লাশ হানিফের শশুরের পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।  নিহতদের মৃত্যুর ঘটনায় থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা হয়েছে।