ছাত্রনেতা অমির নেতৃত্বে একঝাঁক তরুন ছাত্রলীগ কর্মী ধান কেটে ঘরে তুলে দিলেন।

শরীফ হোসেন ভালুকা প্রতিনিধি: বিশ্ব মহামারীর এই ক্রান্তিলগ্নে করোনার ভয়াল গ্রাসে আক্রমনিত জাতির এই দুঃসময়ে প্রকৃতির ধারাবাহিকতায় মাঠে পেকে গেছে কৃষকের মাথার ঘাম পায়ে ফেলে কষ্ট করে উৎপাদনকৃত ধান।

কিন্তু ফসল ঘরে তুলতে শ্রমিক ও আর্থিক সংকটে ভুগছে কৃষকরা। কৃষকের ঘাম ঝাড়ানো একটি ধানঁ যাতে নষ্ট না হয়, সেই লক্ষ্যে কৃষকদের পাশে দাঁড়ানোর নির্দেশ দিয়েছেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে বাংলাদেশের বহু স্থানে কৃষকের পাশে এসে দাড়িয়েছে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ।

ভালুকায়ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে ও ময়মনসিংহ -১১ সাংসদ আলহাজ্ব কাজিম উদ্দিন আহমেদ ধনু এম পির  অনুপ্রেরণায় কৃষকের পাকাধান কেটে ঘরে তুলে দিতে কলম রেখে কাচি হাতে নিয়ে কৃষকের পাশে এসে দাঁড়িয়েছে বঙ্গবন্ধুর নিজ হাতে গড়া সংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগ ভালুকা পৌর ছাত্রলীগ’র একদল কর্মী।

বৃহস্পতিবার (০৭ মে) সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত ভালুকা পৌর ছাত্রলীগ নেতা ফাসাহাতুল ইমরান অমির নেতৃত্বে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে ৬নং ভালুকা ইউনিয়নের আশকা গ্রামের এক কৃষকের  ৩৫ শতাংশ জমির পাকাধান কেটে ঘরে তুলে দেয়া হয়েছে।

কৃষক জানান, আমি মানুষের বাড়ীতে কাজ করে নিজের সংসার চালাই। নিজের পরিবারের বছরের চাল সংগ্রহের জন্য এই জমি টুকু আবাদ করি। কিন্তু শ্রমিক সংকট ও আমার কাছে টাকা না থাকায় ক্ষেতের ধান কাটতে পারছি না। এ সংবাদ ভালুকা পৌর  ছাত্রলীগের নেতা ফাসাহাতুল ইমরান অমি ভাই পেয়ে নিজে এসে তার কর্মী নিয়ে আমার ধান কেটে দিলেন। এতে আমার অনেক উপকার হয়ছে। আল্লার কাছে তাঁর জন্য দোয়া করি।

ভালুকা পৌর ছাত্রলীগ নেতা   ফাসাহাতুল ইমরান অমি জানান, ‘জাতির এই ক্লান্তিলগ্নে ছাত্রলীগ মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছে। বাংলাদেশ ছাত্রলীগ সব সময় মানুষের সকল প্রকার বিপদ আপদে মানুষের পাশে থেকে অতীতে ও বর্তমানে কাজ করছে। করোনার প্রভাবে অসহায় হয়ে যাওয়া মানুষের পাশে থাকতে আমাদের একমাত্র অভিভাবক মাননীয় প্রধানমন্ত্রী,বঙ্গবন্ধু কন্যা, দেশরত্ন শেখ হাসিনা আমাদের নির্দেশ দিয়েছেন।

এই ক্লান্তিলগ্নে অসহায় এই কৃষকের ধান কেটে দিতে পেরে অনেক তৃপ্তি পাচ্ছি।  এছারা ছিন্নমূল মানুষকে খাবার বিতরন,অসহায় কৃষকদের ধান কাটা, সহ বিভিন্ন কার্যক্রমে অংশগ্রহণ করি।