কুষ্টিয়ায় শীর্ষ সন্ত্রাসী রাশিদুল আটক: বিভ্রান্তি ছড়াচ্ছে পরিবার

কুষ্টিয়ায় শীর্ষ সন্ত্রাসী একাধিক মামলার আসামী রাশিদুল ইসলামকে গ্রেফতার করা নিয়ে বিভ্রান্তি ছড়াচ্ছে তার পরিবার ও বাহিনীর সদস্যরা। বিভিন্নভাবে মিথ্যা ও বানোয়াট তথ্য দিয়ে আইনশৃংঙ্খলা বাহিনীর কর্মকান্ডকে প্রশ্নবিদ্ধ করার চেষ্টা করছে। গত ২৭ ডিসেম্বর ২০২০ইং তারিখে র‌্যাব -১২ সিপিসি-১ এর কোম্পানী কমান্ডার মেজর গাফফারুজ্জামানের নেতৃতে অভিযান চালিয়ে ১টি বন্দুক, ১টি পিস্তল, ১৭ রাউন্ড গুলি, ৪ টি হাসুয়া, ২টি মোবাইল ফোন, নগদ ২২৭ টাকা, ৪টি ঢাল এবং সরকী সহ শীর্ষ সন্ত্রাসী রাশিদুলকে আটক করা হয়।

শীর্ষ সন্ত্রাসী রাশিদুল ইসলাম চরমপন্থী সংগঠন গনমুক্তি ফৌজের শীর্ষ সন্ত্রাসী আমিনুল ইসলাম মুকুলের সহযোগী। দীর্ঘদিন যাবত সদর উপজেলার কাঞ্চনপুর ইউনিয়নের ভবানীপুর এলাকায় হত্যা, গুম, চাদাবাজি, অপহরন, নারী লুষ্ঠন সহ বিভিন অপকর্ম করে আসছিলো। তার বিরুদ্ধে থানায় ৫ টি মামলা ও ১ টি সাধারন ডায়েরী রয়েছে। যদিও তার পরিবার মামলার বিষয়টি অস্বীকার করছে। শীর্ষ সন্ত্রাসী রাশিদুল গ্রেফতারের পর ঐ এলাকার জনসাধারনের মাঝে শান্তি ফিরে এসেছে। এলাকাবাসী বলছে, র‌্যাব-১২ রাশিদুলকে গ্রেফতারের পর তাদের মধ্যে স্বস্তি ফিরে এসেছে। র‌্যাব-১২’র সন্ত্রাসী চাঁদাবাজদের বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থানকে সাধুবাদ জানায় তারা। এদিকে গতকাল কুষ্টিয়া প্রেসক্লাবে সন্ত্রাসী রাশিদুলের স্ত্রী রাজিয়া খাতুন এক সংবাদ সম্মেলনে দাবী করেন, তার স্বামী রাশিদুল ইসলাম নিপরাধ।

ষড়যন্ত্র করে তাকে ফাঁসানো হয়েছে। এছাড়া তিনি আরো বলেন, তার স্বামীর বিরুদ্ধে একটি মামলা ছাড়া আর কোনো মামলা নেই। যদিও সন্ত্রাসী রাশিদুলের বিরুদ্ধে থানায় ও আদালতে ৫টি মামলা ও একাধিক ডায়েরি রয়েছে। এদিকে কুষ্টিয়া র‌্যাব-১২ সিপিসি-১ এর কোম্পানী কমান্ডার মেজর গাফফারুজ্জামান যোগদানের পর থেকেই একের পর এক মাদক, সন্ত্রাসী ও চাঁদাবাজদের বিরুদ্ধে অভিযান পরিচালনা করে চলেছেন। ফলে কুষ্টিয়া র‌্যাব-১২’র ভাবমূর্তি অনন্য উচ্চতায় পৌছেছে জনসাধারনের কাছে। এ বিষয়ে কুষ্টিয়া র‌্যাব-১২ সিপিসি-১ এর কোম্পানী কমান্ডার মেজর গাফফারুজ্জামান বলেন, র‌্যাব কখনোই কারো দ্বারা প্রভাবিত হয়ে কোনো কাজ করে না। কুষ্টিয়া র‌্যাব-১২ জনসাধারনের নিরাপত্তায় সর্বদায় সচেষ্ট রয়েছে। মাদক, সন্ত্রাস, চাঁদাবাজদের বিরুদ্ধে অভিযান অব্যাহত রয়েছে। কুষ্টিয়ায় মাদক, সন্ত্রাস, চাঁদাবাজদের নিমূলে র‌্যাব-১২ নিরলসভাবে কাজ করছে।