কুষ্টিয়ায় বন্ধুর জন্মদিনে এ্যালকোহল পান করে ৩ কলেজ ছাত্রের মৃত্যু গ্রেফতার ১।


জন্মদিনের উৎসবে এ্যালকোহল পান করে বিকেএসপি’র এক ছাত্রসহ দুজনের মৃত্যু হয়েছে। এঘটনায় অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন আরো ৩ জন। এরা হলেন জিহাদুর রহমান সাজিদ, (১৬)ও ফাহিম(১৭),ও পাভেল (১৮)।  তাদের অবস্থাও আশংকাজনক বলে জানা গেছে। পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায় আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে কুষ্টিয়া ইসলামীয়া কলেজ মাঠে বিকেএসপি’র ছাত্র সাজিদের জন্মদিনের পার্টি চলাকালে বন্ধুরা মিলে এ্যালকোহল পান করে।

এর কিছুক্ষণ পর সাজিদসহ অন্তত ৫ জন অসুস্থ হয়ে পড়লে তাদেরকে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বিকেলে মারা যান সাজিদ। সন্ধায় মারা যান ফাহিম নামে আরো একজন। তারপর রাত ৭ টার দিকে মারা যায় পাভেল। হাসপাতাল ও পরিবার সুত্র জানিয়েছে, বিকেএসপি’র বাস্কেট বল টিমের খেলোয়াড় জিহাদুর রহমান সাজিদের জন্মদিন ছিল আজ।

এ উপলক্ষে তার বন্ধু ও পরিচিতরা জন্ম দিনে শহরের কোর্ট ষ্টেশনের সামনে অবস্থিত রাফি হোমিও হল থেকে বিষাক্ত এলকোহল ক্রয় করে। ইসলামী কলেজের মধ্যে গিয়ে তারা এলকোহন স্পিড ক্যানের সাথে মিশিয়ে পান করে। এরপর বিকেলের দিকে তারা অসুস্থ হয়ে একে একে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে এসে ভর্তি হয়।

এর মধ্যে এক এক করে সাজিদ, ফাহিম,ও পাভেল মারা যায়। আর অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছে আতিকুল (২২), সুরুজ (২২) ও শান্ত (২৩) নামের তিন বন্ধু। এ বিষয়ে হাসপাতালের আরএমও তাপস কুমার সরকার জানান, এ্যালকোহল জাতীয় পানীয় পান করে ৬ জন হাসপাতালে ভর্তি হন। পরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ৩ জনের মৃত্যু হয়।

সুরুজ নামের একজনকে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজে রেফার্ড করা হয়েছে এবং চিকিৎসাধীন ২ জনের অবস্থাও আশংকা জনক বলে জানান তিনি। এ ব্যাপারে কুষ্টিয়া মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ গোলাম মোস্তফা বলেন, রাফি হোমিও হল থেকে বন্ধুরা মিলে এলকোহল কিনেছিল। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য দোকানের মালিক রফিকুল ইসলামের একজনকে আটক করা হয়েছে।