কুষ্টিয়ায় অপপ্রচার ও চাঁদাবাজির প্রতিবাদে সাংবাদিকদের মানববন্ধন

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি: কুষ্টিয়া প্রেস ক্লাব কেপিসির প্রধান উপদেষ্টা, কুষ্টিয়ার উন্নয়নের রুপকার জননেতা মাহবুবউল আলম হানিফ এমপি’র বিরুদ্ধে প্রথম আলোর বিভিন্ন সময়ের মিথ্যাচারের প্রতিবাদে কুষ্টিয়া প্রেস ক্লাব কেপিসির সামনে সাংবাদিকদের মানববন্ধন আজ বেলা ১১ টায় অনুষ্ঠিত হয়। বক্তারা বলেন, যা ইচ্ছে তাই লেখার মানে সাংবাদিকতা নয়। এতে আমরা গণমাধ্যমকর্মীরা পেশাগত জায়গা থেকে ক্ষতিগ্রস্ত হই।

বক্তারা আরও বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কেন প্রথম আলো পড়েন না, কেন গণভবনে প্রবেশ করতে দেন না, তা আমরা বুঝেছি। ব্যক্তিগত ক্ষোভ, স্বার্থ চরিতার্থ না হওয়া এবং গণতন্ত্র ও মুক্তিযুদ্ধের সপক্ষের মানুষের বিরুদ্ধে গোয়েবলস কায়দায় মিথ্যাচার করা যে পত্রিকার আদর্শ তা কখনও গণমানুষের কাগজ হতে পারে না। কুষ্টিয়ায় এক সময় এই পত্রিকার পাঠক সংখ্যা যা ছিল এখন তা তলানীতে নেমে গেছে। এই পত্রিকার প্রতিনিধি সারাদিন কি করে বেড়ায় তা সবাই জানে।

প্রতিনিধি হওয়ার আাগের এবং পরের সম্পদের হিসাব নিলেই থলের বিড়াল বেরিয়ে আসবে। সেগুলো সংবাদ হয় না। সংবাদ হয় উন্নয়নের রুপকার, জনপ্রিয় জনপ্রতিনিধিদের বিরুদ্ধে। বক্তারা আরও বলেন, কুষ্টিয়াবাসী এই পত্রিকা বয়কট করেছে। যে কারনে কুষ্টিয়ার কোন স্থানীয় সাংবাদিক এই পত্রিকার প্রতিনিধি হয়নি। অন্য জেলার নাগরিককে হায়ার করে এনে প্রতিনিধি করতে হয়েছে। কুষ্টিয়ার সাংবাদিকরা এই হলুদ সাংবাদিকতা মেনে নেবে না বলে জানান।

এ সময় সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে ও স্বাস্থ্য বিধি মেনে উপস্থিত ছিলেন কুষ্টিয়া প্রেস ক্লাব কেপিসির সভাপতি রাশেদুল ইসলাম বিপ্লব, সাধারণ সম্পাদক সোহেল রানা, সাংগঠনিক সম্পাদক সাবিনা ইয়াসমিন শ্যামলী, কোষাধ্যক্ষ মিলন উল্লাহ, টিভি জার্নালিস্ট এসোসিয়েশন কুষ্টিয়ার সভাপতি জামিল হাসান খান খোকন, কুষ্টিয়া এডিটরস ফোরামের সাধারণ সম্পাদক নাহিদ হাসান তিতাস, উইমেন জার্নালিস্ট এসোসিয়েশনের সভাপতি আফরোজা আক্তার ডিউ, কুষ্টিয়া জেলা ফটো জার্নালিস্ট এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক তৌফিক তপনসহ জেলায় কর্মরত প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকরা।