কুষ্টিয়ার ঝাওদিয়ায় প্রতিপক্ষের হামলা কিয়াম নামে একজন গুরুতর আহত।


নিজস্ব প্রতিনিধি: কুষ্টিয়া সদর উপজেলার ঝাওদিয়া ইউনিয়ন এর হাতিয়া গ্রামে জমিজমা সংক্রান্ত পূর্ব শত্রুতার জের ধরে প্রতিপক্ষের হামলায় ঘটনায় ইমারত আলীর ছেলে কিয়াম মন্ডল নামে একজন গুরুতর আহত হয়েছে। আজ দুপুর ১২ টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। এলাকাবাসী সুত্রে জানাযায় কিয়াম মন্ডল এর হাতিয়া বাজারে একটি কীটনাশক এর দোকান আছে, আর আজ সে ১২ টার দিকে দোকান থাকাকালীন পাশের বাড়ির দাওদ আলী ও তার ৩ ছেলে বাদশা আলমগীর, কলম আলী ও লালন আলী বাটাম, রামদা সহ দেশীয় অস্ত্র নিয়ে হটাৎ কিয়াম এর উপ হামলা করলে কিয়াম গুরুতর আহত হন।

একপর্যায়ে এলাকাবাসী কিয়াম কে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে আসলে ইমারজেন্সি বিভাগের দায়িত্বে থাকা ডাক্তার ১০ নং সার্জারি ওয়ার্ডে ভর্তি হতে বলে, এসময় কিয়াম মন্ডল এর পুরো শরির এ অসংখ্য মারপিট এর দাগ দেখা যায় এবং পিঠ ও মাজায় অনেক রক্তপাত হয়।

এ বিষয়ে আহত কিয়াম মন্ডল এর ছোট ভাই কুষ্টিয়া সদর উপজেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম আহবায়ক আবির হোসেন আমান জানান দীর্ঘদিন ধরে আমার বাড়ির পাশে আমার বড় ফুফুর জমি দাওদ আলী তার নিজের দাবী করে আসছে, কিন্তু আমরা জমির কাগজ পত্র চাইলে তারা দেখাতে পারেনা, একপর্যায়ে তারা অন্য পথ বেছে নিয়ে আমার ভাই এর উপর হামলা চালায়। তিনি এসময় আইনের উপর শ্রদ্ধা রেখে বলেন দেশে আইন আছে, বিচার আছে, আদালত আছে তারা যদি জমির কাগজ পত্র সঠিক দেখাতে পারে তাহলে জমি তারা নিয়ে নিবে এতে আমাদের কোন আপত্তি নাই। কিন্তু এভাবে কেন আমার ভাই এর উপর হামলা করা হলো, আমি এর দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই।

এ বিষয়ে কুষ্টিয়া ইবি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জাহাঙ্গীর আরিফ বলেন আমরা প্রাথমিক ভাবে শুনেছি ঝাওদিয়ার হাতিয়াতে হামলার ঘটনা ঘটেছে তাৎক্ষণিক আমাদের পুলিশের ফোর্স গিয়ে সেখান থেকে বাদশা আলমগীর ও কলম নামে দুজনকে আটক করতে সক্ষম হয় এ বিষয়ে পরবর্তীতে তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত ইবি থানা তে মামলা প্রক্রিয়াধীন আছে বলে জানা যায়