কুমারখালির কয়া ইউনিয়নে এক যুবক কে মারধরের অভিযোগ।

ওয়াসিম শেখ

নিজস্ব প্রতিনিধি: কুষ্টিয়ার কুমারখালি উপজেলার কয়া ইউনিয়নের রায়ডাংগার ওয়াসিম শেখ নামের এক যুবক কে মারধর এর অভিযোগ উঠেছে । জানাযায় আজ সকাল ৯ টার দিকে কুমারখালি উপজেলার কয়া ইউনিয়ন ফুলতলা নামক স্থানে এ ঘটনা ঘটে।

আহত ওয়াসিম শেখ বলেন আজ সকাল ৯ টার দিকে আমি কয়া ইউনিয়ন এর ফুলতলা নামক স্থানে দাঁড়িয়ে থাকলে বালু বহন করা একটি ল্যাটাহাম্বা নামে গাড়ি আমাকে ধাক্কা দিলে আমার একটি হাতের আংগুল কেটে যায় এবং কোমরে প্রচন্ড ব্যাথা পাই, পরে স্থানীয় লোকজন গাড়িটা থামিয়ে দেখে একজন ১৫ বয়স এর কিশোর গাড়িটা চালাচ্ছে।

এক পর্যায়ে স্থানীয় লোকজন গাড়িটি আটকালে গাড়ী চালক কিশোর স্থানীয় প্রভাবশালী বালুরঘাটের মালিক আরজু কে ফোন দেয়, তার কিছুক্ষণের মধ্যেই আমি পাশেই গ্রাম্য ডাক্তারের কাছে চিকিৎসা নেওয়ার সময় আরজর লোক বাদশা, আছাই সহ বেশ কয়েকজন আমাকে বেধড়ক মারধর করেন এবং আমার আরো একটা আংগুল কেটে যায়,কিন্তু গাড়িটি অপ্রাপ্ত বয়স্ক একটি ছোট ছেলে কেন চালাচ্ছে এর প্রতিবাদ করার কারনে কেন আরজুর লোক আমাকে মারধর করলো সেটা আমি বুঝে উঠতে পারছিনা। তাই আমি আরজু সহ সহ যারা আমাকে মারধর করেছে তাদের সঠিক বিচার দাবি করছি।

ঘটনা সুত্রে জানাযায় ওয়াসিম গুরুতর আহত হলে স্থানীয় লোকজন তাকে কুমারখালি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে পাঠিয়ে দেয়।