করোনায় আক্রান্ত হয়ে ঢাকায় মৃত ব্যক্তির শার্শায় দাফন সম্পন্ন

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ঢাকায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত এক ব্যক্তিকে শার্শায় দাফন করলো স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন কোয়ান্টাম ফাউন্ডেশন।

ইকরামুল ইসলাম বেনাপোল প্রতিনিধি: করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ঢাকায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত এক ব্যক্তিকে শার্শায় দাফন করলো স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন কোয়ান্টাম ফাউন্ডেশন। যশোরের শার্শা উপজেলার চটকাপোতা গ্রামের আজিজুল হকের ছেলে মৃত ওই ব্যক্তি হুমায়ুন কবির (৫৯) রোববার সন্ধ্যায় ঢাকায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান।

কোয়ান্টাম ফাউন্ডেশনের বৃহত্তর যশোরের অর্গানাইজার খান-এ আলম মানিক বলেন, হুমায়ুন কবির করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে তার ভাই কর্নেল (অব:) ডা. মোহাম্মদ শাহজাহানের অধীনে রাজধানীতে চিকিৎসাধীন ছিলেন। রোববার সন্ধ্যায় তিনি মারা যান। রাতেই স্বজনরা মরদেহ নিয়ে যশোরের শার্শা উপজেলার চটকাপোতা গ্রামের বাড়ির উদ্দ্যেশে রওনা হন। সোমবার ভোরে মরদেহ তার গ্রামের বাড়িতে পৌঁছায়।আনুষ্টানিকতা শেষে তার দাফন কাজ সম্পন্ন করা হয়।

“করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃত হুমায়ুনকে দাফনের সময় যশোরের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট, শার্শা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা পুলক কুমার মন্ডল ও শার্শা থানার ওসি বদরুল আলম উপস্থিত ছিলেন। শার্শা থানার ওসি বদরুল আলম বলেন, হুমায়ুন কবির ঢাকায় থাকতেন। সেখানেই তিনি করোনায় আক্রান্ত হন। করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত মৃত বরনকারি হুমায়ুন কবিরের বাড়িটি লকডাউন করা হয়েছে।

স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন কোয়ান্টাম ফাউন্ডেশনের টিমে বৃহত্তর যশোরে ২৪ জন কাজ করেন। কোয়ান্টাম ফাউন্ডেশনের স্বেচ্ছাসেবীদের জেলা প্রশাসন, স্বাস্থ্য বিভাগ আলাদা ভাবে প্রশিক্ষণ দিয়েছে। এছাড়া ধর্মীয় বিষয়াদির ওপর প্রশিক্ষণ দিয়েছে ইসলামিক ফাউন্ডেশন ও হিন্দু পরিষদ।