করোনাভাইরাস শনাক্তকরণ ল্যাব উদ্বোধন করেন মাহবুব-উল-আলম হানিফ এমপি


কুষ্টিয়া অফিস: কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) এর নমুনা পরীক্ষার কার্যক্রমের উদ্বোধন করেছেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও কুষ্টিয়া সদর আসনের সংসদ সদস্য মাহবুব-উল-আলম হানিফ। বৃহস্পতিবার (১৬ এপ্রিল) বেলা ১১টায় কুষ্টিয়া ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে করোনাভাইরাস শনাক্ত করার পলিমার্স চেইন রিএকশান (পিসিআর) ল্যাব উদ্বোধন করেন তিনি। পাশাপাশি এক্সপার্ট টিমের তত্ত্বাবধানে এ হাসপাতালের চিকিৎসক ও টেকনিশিয়ানসহ আটজনের প্রশিক্ষণ সম্পন্ন হয়।

চিকিৎসকরা করোনা সন্দেহে যাদের স্যাম্পল পাঠাবেন শুধুমাত্র তাদেরই পরীক্ষা হবে বিনামূল্যে অর্থাৎ সম্পূর্ণ সরকারি খরচে। ল্যাবের ইনচার্জ হিসাবে দায়িত্ব পালন করবেন কুষ্টিয়া মেডিকেল কলেজের ‘মাইক্রোবায়োলজির সহকারী অধ্যাপক ডাক্তার নাজনীন রহমান। এদিকে করোনা চিকিৎসায় নিয়োজিত ডাক্তার, নার্সসহ সংশ্লিষ্টদের জন্য কিট, পিপিইসহ সকল চিকিৎসা সরঞ্জাম হাসপাতালে পৌঁছেছে। এসব চিকিৎসা সামগ্রীর মধ্যে পারসোনাল প্রটেকটিভ ইকুপমেন্টসহ (পিপিই) ৫০০টি স্যাম্পল কালেশন টেস্ট, সার্জিক্যাল গ্লাভস, মাস্ক ও ক্যাপ উল্লেখযোগ্য। পিসিআর মেশিনে প্রতিদিন একসাথে ৯০টি নমুনা পরীক্ষা করা যাবে।

এতে চার ঘণ্টায় মিলবে পরীক্ষার ফলাফল। দেশের ১৮ তম এই পিসিআর ল্যাব উদ্বোধনের ফলে দীর্ঘসূত্রিতা ও বিড়ম্বনা ছাড়াই কুষ্টিয়া, চুয়াডাঙ্গা, মেহেরপুর ও রাজবাড়ীসহ নিকটতম জেলার করোনা রোগীরাও এ টেস্টিং ল্যাবরেটরি থেকে করোনা পরীক্ষা সুবিধা লাভ করবে। তারা এখানে এসে নমুনা সংগ্রহ ও করোনা শনাক্তকরণসহ এবং চিকিৎসা নিতে পারবেন। উদ্বোধন শেষে সাংবাদিকদের মাহবুব-উল-আলম হানিফ এমপি বলেন, ইউনিয়ন থেকে ওয়ার্ড পর্যায়ে ত্রাণ কমিটি করা হচ্ছে।

এই কমিটি কর্মহীন মানুষ যাদের ত্রাণ সহায়তা দরকার তাদের তালিকা করে তাদেরকে ত্রাণ সহায়তা দেয়া শুরু হয়েছে। সারাদেশ ব্যাপী সমাজের সকল কর্মহীন মানুষের মাঝে এটা অব্যাহত থাকবে। কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার চিকিৎসক তাপস কুমার সরকার বলেন, ল্যাব তৈরী হলেও ফলাফল ঘোষণা হবে আইইডিসিআর থেকে। কুষ্টিয়ায় করোনা আক্রান্ত রোগীদের জন্য বিভিন্ন হাসপাতালে ১০০ আইসোলেশন বেড প্রস্তুত রাখা হয়েছে। তবে কোন আইসিইউ ও ভেন্টিলেটর নেই এখানে।

পিসিআর মেশিন উদ্বোধকালে উপস্থিত ছিলেন কুষ্টিয়া-১ আসনের সংসদ সদস্য আ.কা. ম সরওয়ার জাহান বাদশা, জেলা প্রশাসক আসলাম হোসেন, পুলিশ সুপার এসএম তানভীর আরাফাত, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা হাজী রবিউল ইসলাম, কুষ্টিয়া মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ ডাক্তার আশরাফুল হক দারা, সাবেক অধ্যক্ষ অধ্যাপক ডাক্তার এসএম মুসতানজিদ, হাসপাতালের উপ-পরিচালক ডাক্তার নূরুন নাহার, সিভিল সার্জন ডাক্তার এইচ এম আনোয়ারুল ইসলাম, আএমও ডাক্তার তাপস কুমার সরকার, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সদর উদ্দিন খান, সাধারণ সম্পাদক মুক্তিযোদ্ধা আজগর আলী, শহর আওয়ামী লীগের সভাপতি তাইজাল আলী খান প্রমুখ।