এমপিও নীতিমালা-২০১৮ শর্তপূরনে ৮৫% তবুও মহিলা কলেজ এমপিওভূক্তি হয়নি।

দশমিনা উপজেলার মহিলা কলেজ।
দশমিনা উপজেলার মহিলা কলেজ।

দশমিনা(পটুয়াখালী) প্রতিনিধি: পটুয়াখালী জেলার দশমিনা উপজেলার একমাত্র নন এমপিও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ডাঃডলি আকবর মহিলা কলেজ। কলেজটি দশমিনা উপজেলার প্রান কেন্দ্রে মনোরম পরিবেশে অবস্থিত। দশমিনা উপজেলায় নারীদের প্রকৃত শিক্ষা দানে ২০০৯ ইং সনে দশমিনা
উপজেলায় স্থাপন করা হয় ডাঃডলি আকবর মহিলা কলেজ। ২০১৪ ইং সনে কলেজটি স্বীকৃতি প্রাপ্ত হয়।

কলেজটি প্রতিষ্ঠিত হওয়ার পর থেকে দশমিনা উপজেলার শত ভাগ অভিভাবক খুশি হন, কারন দশমিনা উপজেলায় কোন মহিলা কলেজ নেই । শিক্ষা মন্ত্রনালয় এমপিও নীতিমালা ২০১৮ প্রনায় করেন। ঐ নীতিমালার আলোকে ডাঃ ডলি আকবর মহিলা কলেজ এমপিওভূক্তির জন্য আবেদন করে। এমপিওভূক্তির জন্য ১০০মার্কের শ্রেনী বিন্যাসে ডাঃডলি আকবর মহিলা কলেজ শিক্ষার্থীর সংখ্যা ১২০ এ ২১০, পরীক্ষার্থীর  সংখ্যা ৪০ এ ৯০,পাশের হার ৭০% এ ৮৪.৪০%  একাডেমিক  স্বীকৃতি ২বছর এ ৫বছর ছিলো সর্বোমোট ৮৫% মার্ক প্রাপ্ত হয়।

মাননীয় প্রধান মন্ত্রী ২৩ অক্টোবর ২০১৯ইং তারিখ নতুন এমপিওভূক্ত ঘোষনা করেন গেজেট প্রকাশের পর ডাঃডলি আকবর মহিলা কলেজ এর নাম না থাকায় কলেজএর কর্মরত সকল শিক্ষক-শিক্ষিকা গন হতাশ। ডাঃডলি আকবর মহিলা কলেজ এর অধ্যক্ষ যনান এই কলেজটি প্রতিষ্ঠিত হয়েছিলো দশমিনা উপজেলার নারী শিক্ষার মানউন্নয়নের জন্য
এবং অনেক গরিব,মেধাবি ছাত্রীরা দূরের কোন প্রতিষ্ঠানে গিয়ে পড়াশুনার খরচ পরিচালনা করে পড়াশুনা করতে পারেনা ,এস এস সি পাশ করার পর দশমিনা উপজেলার অনেক ছাত্রীরা ঝরে যায় ।

প্রতিষ্ঠানটিতে দক্ষ শিক্ষক-শিক্ষিকা কতৃক পাঠদান করানো হয়। শিক্ষা মন্ত্রনালয় কতৃক এমপিও নীতিমালা ২০১৮ প্রনায়নের পর এমপিওভূক্তির জন্য আবেদন করেছি এবং শর্ত পূরনে সমর্থ হয়েছি । দশমিনা উপজেলার মধ্যে একমাত্র নন এমপিও মহিলা কলেজ সে ক্ষেত্রে এমপিওভূক্তি করনে অগ্রাধিকার পাবার কথা, কেনো কি কারনে কলেজটি এমপিওভূক্তি হয়নি তা বুজতে পারছিনা।

ডাঃডলি আকবর মহিলা কলেজ এর পরিচালনা পর্ষদ , শিক্ষক-শিক্ষিকাদের একটিই প্রানের দাবী মাননীয় প্রধান মন্ত্রী,শিক্ষা মন্ত্রী কছে ডাঃডলি আকবর মহিলা কলেজ কতৃক প্রেরিত এমপিও নীতিমালা ২০১৮ তথ্য পূনরায় বিবেচনা করে ডাঃডলি আকবর মহিলা কলেজটি এমপিওভূক্তি করার আবেদন।