ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রীর মোবাইল-ব্যাগ ছিনতাই! তার প্রতিবাদে ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ।

ছবি: শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ।

শাহীন আলম লিটন, কুষ্টিয়া: কুষ্টিয়া : ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি): কুষ্টিয়া শহরে ছিনতাইয়ের শিকার হয়েছেন ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্রী। এ সময় ছিনতাইকারী ছাত্রীর সঙ্গে থাকা মোবাইল- ব্যাগ ছিনিয়ে নিয়ে নেয়। ছিনতাইকারী জোর করে ব্যাগ টান দেওয়ার কারণে ওই ছাত্রীর বাম হাতের বৃদ্ধা আঙুল কেটে গেছে। বৃহস্পতিবার (৯ জানুয়ারি) কুষ্টিয়া শহরের টালিপাড়া এলাকার রাস্তার গলিতে এ ঘটনা ঘটে। আহত ওই ছাত্রীর নাম জান্নাতুল ফেদৌসি ইরা।তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের গণিত বিভাগের ৪র্থ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী বলে জানা গেছে। তিনি কুষ্টিয়া সরকারি কলেজের পেছনে (টালিপাড়া এলাকা) মায়ের দোয়া নামে একটি মেসে থাকেন। ছাত্রীর বরাত দিয়ে সহপাঠীরা জানান, সন্ধ্যায় ইরা সরকারি কলেজের পেছনের গলি দিয়ে হেঁটে বাজারের দিকে যাচ্ছিলেন।

 

এ সময় মোটরসাইকেলে করে দুইজন ছিনতাইকারী তার হাতে থাকা ব্যাগ জোর করে ছিনিয়ে নিয়ে পালিয়ে যায়। ব্যাগ জোর করে টান দেওয়ায় ওই ইরার বাম হাতের বৃদ্ধাঙুল কিছুটা কেটে যায়। ব্যাগে তার ব্যবহৃত একটি মোবাইল ফোন, এক হাজার টাকা, জাতীয় পরিচয়পত্র, বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিচয়পত্র, লাইব্রেরি কার্ডসহ প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র ছিলো। আমরা বিষয়টি আমাদের প্রক্টর স্যারকে জানিয়েছি। এ ঘটনার শুনার সঙ্গে সঙ্গে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক ড. পরেশ চন্দ্র বর্মণ ঘটনাস্থলে ছুটে যান।

এসময় তিনি কুষ্টিয়া পুলিশের সহায়তায় রাস্তার সিসি ফুটেজ দেখে ছিনতাইকারী শনাক্ত করার চেষ্টা করছেন বলে জানিয়েছেন। এদিকে এ ঘটনায় রাত সাড়ে নয়টার দিকে ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ মিছিল করেছেন সাধারণ শিক্ষার্থীরা। এসময় বিক্ষোভরত শিক্ষার্থীরা ছিনতাইয়ের সঙ্গে জড়িত ছিনতাইকারীদের শনাক্ত করে শাস্তির দাবি জানান। পাশাপাশি শহরে অবস্থানরত শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তা দিতে প্রশাসনের আরও কঠোর হওয়ার দাবি জানান।