আগামী কাল থেকে সারা পশ্চিম বাংলা দুই দিনের লকডাউন শুরু।

মনোয়ার ইমাম, দক্ষিণ চব্বিশ বরগনা: এই লকডাউন উপলক্ষে পশ্চিম বাংলার বিভিন্ন স্থানে শান্তি ও শৃঙ্খলা বজায় রাখতে কড়া নির্দেশ দিয়েছেন পশ্চিম বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি প্রতিটি জেলার পুলিশ সুপার ও স্বানীয় প্রশাসন কর্তাদের কড়া বার্তা দিলেন। বর্তমান এ সারা পশ্চিম বাংলার বিভিন্ন যায়গায় করোনা ভাইরাস আক্রান্ত মানুষের সংখ্যা বৃদ্ধি পেয়েছে।

খুলে দেয়া হয়েছে জরুরি ভিত্তিতে সব হাসপাতালে জরুরি বিভাগ। ডাক্তার রা এই করোনা ভাইরাস আক্রান্ত মানুষের সাহায্য দিন রাত করে সেবা চালু রেখেছে। যুদ্ধকালীন তৎপরতায় চিকিৎসা সেবা প্রদান করেছেন বাংলর মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি প্রতিটি জেলার ও থানার ওসি ও অফিসারদের নির্দেশ দিয়েছেন যাতে করে কোন অপ্রীতিকর ঘটনা না ঘটে।

এই লকডাউন এর আওতায় থেকে ছাড় দেওয়া হয়েছে হাসপাতাল পরিসেবা, দুধের গাড়ি।জল এর গাড়ি, বিদ্যুৎ পরিসেবা,রুগিদের যান বাহন। জরুরী কারণ ছাড়া বাড়ির বাইরে বের হতে মানা করা হয়েছে সাধারণ মানুষ দের।এই উপলক্ষে দক্ষিণ চব্বিশ বরগনা জেলা পুলিশের পক্ষ জনসচেতনতা সৃষ্টি ও পথনিরাপত্তা এবং শান্তি বজায় রাখতে আগাম সতর্কতা অবলম্বন করা হয়েছে।

দক্ষিণ চব্বিশ পরগনা জেলার ডি আই জি পি,পি আর, শ্রী প্রবীণ কুমার ত্রিপাঠী আই পি এস। এবং দক্ষিণ চব্বিশ পরগনা জেলা পুলিশের সুপার, শ্রী ভোলানাথ পান্ডে,আই পি এস। এবং বারুইপুর জেলা পুলিশ সুপার জনাব রসিদ মুনির খাঁন।

ও সুন্দর বন এলাকার জেলা পুলিশ ভূদেব তেওয়ারি আই পি এস। প্রতিটি জেলার প্রশাসন ও এস ডি পি ও,সি আই এবং আই সি এবং ওসিদের নির্দেশ দিয়েছেন। খুলে রাখা হবে নবান্ন থেকে বিশেষ কন্ট্রোল রুম। প্রশাসন কে সাহায্য করতে প্রতিটি নাগরিক কাছে আবেদন করেছেন পশ্চিম বাংলা সরকার। ভারত থেকে নিউজ দাতা মনোয়ার ইমাম।