আওয়ামী লীগের ইতিহাস বাঙালির ইতিহাসঃ হানিফ।

ফাইল ছবি: বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জননেতা মাহবুবউল আলম হানিফ এমপি।

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি: বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ৭১ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জননেতা মাহবুবউল আলম হানিফ এমপি এক বিবৃতিতে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়ে বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে আওয়ামী লীগ সব সময় বাঙালির মাটি ও মানুষের অধিকার আদায়ের সংগ্রামে অবিচল থেকেছে।

বঙ্গবন্ধু তাঁর জীবনের এক তৃতীয়াংশ অন্ধকার কারাগারে বন্দী থেকেছেন তবুও তিনি কখনো মাথা নত করেননি। বঙ্গবন্ধু ৭ই মার্চের ঐতিহাসিক ভাষণে দ্যর্থহীন কন্ঠে বলেছেন ‘ আওয়ামীলীগের নেতৃত্বে পাড়ায় সংগ্রাম পরিষদ গড়ে তোল’। মহান মুক্তিযুদ্ধের নেতৃত্ব দানকারী সংগঠন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ। বাঙালির আস্থা, ভরসা আর ভালবাসার সংগঠন আওয়ামী লীগ।

আওয়ামী লীগের ইতিহাস বাঙালির ইতিহাস, আওয়ামী লীগের ইতিহাস স্বাধীনতার ইতিহাস। জননেতা মাহবুবউল আলম হানিফ এমপি আরও বলেন, ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট জাতির পিতাকে সপরিবারে হত্যার মধ্য ঘাতকেরা বাংলা আর বাঙালির আাশা আকাঙ্খাকে হত্যা করেছে। হত্যা করেছে মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে। গণতন্ত্রহীন এক গহীন অন্ধকারে নিমজ্জিত হয় বাংলাদেশ।

বঙ্গবন্ধুকন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দীর্ঘ ২১ বছর বাঙালির ভাত ও ভোটের অধিকার আদায়ের আপোষহীন সংগ্রাম শেষে ১৯৯৬ সালে বাংলার মানুষের প্রিয় সংগঠন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ রাষ্ট্র ক্ষমতায় আসে। জনগন ফিরে পায় তাদের অধিকার। ২০০১ সালে প্রহসনের নির্বাচনে স্বাধীনতা বিরোধী জামায়াত- বিএনপি ক্ষমতায় এসে আওয়ামীলীগকে নিশ্চিহ্ন করতে হাজার হাজার আওয়ামীগের নেতাকর্মীকে হত্যা করে।

বাঙালির মুক্তির বাতিঘর বঙ্গবন্ধুকন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনাকে হত্যার উদ্দেশ্যে হাওয়া ভবনের নীল নকশায় গ্রেনেড হামলা করা হয়। বহু রক্তের বিনিময়ে, বহু আত্মত্যাগের বিনিময়ে আওয়ামী লীগ আজ মহীরুহে পরিণত। বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সফল সভানেত্রী, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা খাদ্য স্বয়ংসম্পূর্ণ, তথ্য প্রযুক্তির আধুনিক ও উন্নত বাংলাদেশ উপহার দিয়েছেন। বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা আজ বিশ্বের বুকে মাথা উঁচু করে দাঁড়িয়েছে। বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ৭১তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর শুভেচ্ছা জানিয়েছেন। বার্তা প্রেরক- রাশেদুল ইসলাম বিপ্লব, কুষ্টিয়া।