আউশ আবাদে ব্যাস্ত কৃষক

মো: আশিকুর রহমান রনি: ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জ উপজেলার কৃষকরা আউশ ধান রোপন নিয়ে ব্যাস্ত সময় কাটাচ্ছেন। শ্রমিক সংকটের কারণে চাষাবাদে কিছুটা বিপাকে তারা। তবে ময়মনসিংহ ও নেত্রেকোনার কিছু শ্রমিক এ মৌসুমে এখানে এসে কাজ করছে । ক্ষেত খামারে এখন সনাতন পদ্ধতির গরু লাঙ্গল জোয়াল দিয়ে চাষ পদ্ধতি নেই বল্লেই চলে। আধুনিক পদ্ধতির কলের লাঙ্গল (ট্রাক্টর)দিয়ে চলছে জমি চাষাবাদের কার্যক্রম্ধসঢ়;।

ভোর থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত ট্রাক্টর দিয়ে জমি চাষাবাদ করা হচ্ছে। শ্রমিকরা দাগকেটে নির্দিষ্ট দূরুত্বে বাশ দিয়ে জমিতে ধান রোপন করে থাকে। যার ফলে আগাছা দমনকারী উইডার দিয়ে সহজে আগাছা দমন করতে পারে। এ পদ্ধতি এই অঞ্চলে খুবই জনপ্রিয়। প্রতি শ্রমিনকের বেতন ৫শ থেকে ৬শত টাকা করে দেয়া হয়। উপজেলা কৃষি অফিস সুত্রে জানাজায় উপজোর ৮টি ইউনিয়নে ১২শ পঞ্চাশ হেক্টর জমিতে আউশ আবাদের লক্ষমাত্রা নির্ধারন করা হয়েছে।

কৃষকরা পর্যাপ্ত সার, বীজ ও জ্বালানী তেল এবং বিদ্যুৎ এর লোড শেডিং না থাকায় কৃষকরা শঙ্খামুক্ত ভাবে কৃষি কাজে আউশ আবাদ করছেন। আশুগঞ্জ উপজেলা কৃষি অফিসার মোঃ জাহাঙ্গীর আলম জানান,চলতি আউশ মৌসুমে যে লক্ষমাত্র নির্ধার করা হয়েছে আবহাওয়া অনুকুলে থাকলে আবাদের লক্ষমাত্রা ছাড়িয়ে যাবে । মাঠ পর্যায়ে সার্বক্ষনিক কৃষকদের বিভিন্ন পরামর্শ দিয়ে যাচ্ছেন মাঠ কর্মকর্তারা ।